জাতীয় শিক্ষক ফোরাম’র কেন্দ্রীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত


» শিপার মাহমুদ (জুম্মান) | স্টাফ রিপোর্টার, উত্তরা নিউজ | সর্বশেষ আপডেট: ২২ জানুয়ারি ২০২১ - ১০:৩৯:২৯ পূর্বাহ্ন

রাজধানীর কাকরাইলস্থ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে গতকাল (২১ জানুয়ারি) সকাল ৯ টায় জাতীয় শিক্ষক ফোরাম এর কেন্দ্রীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সম্মেলনে অধ্যাপক মাহবুবুর রহমানকে সভাপতি, মাওলানা এবিএম জাকারিয়াকে সহ-সভাপতি এবং অধ্যাপক নাসির উদ্দিন খানকে সেক্রেটারি জেনারেল করে ২০২১-২২ সেশনের জন্য নতুন কমিটি ঘোষণা করেন সম্মেলনের প্রধান অতিথি, ইসলামী আন্দোলনের আমীর ও জাতীয় শিক্ষক ফোরামের প্রধান উপদেষ্টা মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করিম।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, নাস্তিক্যবাদী গোষ্ঠী ইসলাম ধ্বংসে সিন্ডিকেট ভিত্তিক অপপ্রচার করছে। ইসলামী শিক্ষা ও ইসলামপন্থিদের বিরুদ্ধে অশালীন ভাষা প্রয়োগ করছে।
তিনি বলেন, প্রচলিত শিক্ষাব্যবস্থা শিক্ষার্থীদেরকে আদর্শ মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে ব্যর্থ হয়েছে। দেশপ্রেম ও ইসলামী মূল্যবোধসম্পন্ন সু-নাগরিক গড়ে তোলার লক্ষে শিক্ষার সর্বস্তরে ইসলামী শিক্ষাকে বাধ্যতামূলক করতে হবে। ধর্মহীন শিক্ষার ফলে আদর্শ মানুষের পরিবর্তে চোর-ডাকাত, দুর্নীতিবাজ হিসেবে গড়ে উঠে রাষ্ট্রের সম্পদ বিদেশে পাচার করছে। এই পাচারের সাথে মুর্খ, রিক্সা চালক কিংবা মাদরাসার কোন শিক্ষার্থী জড়িত নয়।
তিনি আরো বলেন, সমাজে একধরণের ডাকাত আছে; যারা রাইফেল বা ছুরি ঠেকিয়ে ডাকাতি করে। অপরদিকে শিক্ষিত ডাকাত; যারা কলম দিয়ে ফাইল ঠেকিয়ে ডাকাতি করে, এরা সকলেই ডাকাত। বরং মুর্খ ডাকাতের চেয়েও শিক্ষিত ডাকাত আরো ভয়ঙ্কর। এজন্য ছাত্র-শিক্ষক উভয়কে নৈতিকতার শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে, যা ইসলামী শিক্ষায় রয়েছে।
তিনি আরো বলেন, আজকাল সকল বুদ্ধিজীবীদের লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হয়েছে ইসলাম। ইসলামপন্থিদের এমনভাবে গালি-গালাজ করে; যা সম্পূর্ণ উস্কানিমূলক। তিনি বলেন, বর্তমান নির্বাচন কমিশন নির্বাচনী ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দিয়েছে। প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচন করার পরও নির্বাচন সুষ্ঠু, সুন্দর এবং নিরপেক্ষ হয়েছে বলে মন্তব্য করতে পারে নৈতিকতাহীন ব্যক্তিরাই। তিনি মাধ্যমিকে নবম-দশম শ্রেণির ডারউইনের বিতর্কিত বিবর্তনবাদ শিক্ষানীতিকে নাস্তিক্যবাদী হিসেবে আখ্যায়িত করে তা অবিলম্বে বাতিলের দাবি জানান।
সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর মহাসচিব অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন, কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা প্রফেসর ডা. আক্কাস আলী সরকার, যুগ্ম মহাসচিব আলহাজ্ব আমিনুল ইসলাম ও ইঞ্জিনিয়ার আশরাফুল আলম, শিক্ষা ও সংষ্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা নেছার উদ্দিন, ঢাবি’র প্রফেসর ড. গোলাম রব্বানী, ইউনিসেফ-এর গবেষণা সহকারি ও ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির সহযোগী অধ্যাপক মুহাম্মদ হাসান রাইয়ান এবং প্রফেসর মুহাম্মদ আব্দুর রকিব।
‘শিক্ষার সর্বস্তরে ধর্মীয় শিক্ষা বাধ্যতামূলককরণ, শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণ এবং শিক্ষক সমাজের ন্যায্য দাবিসমূহ আদায়ের লক্ষকে প্রতিপাদ্য করে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে ১৪ দফা প্রস্তাবনা পেশ করা হয়। প্রস্তাবনা পেশ করেন মাওলানা এবিএম জাকারিয়া। প্রভাষক আব্দুস সবুর এর সঞ্চালনায় সম্মেলনে জাতীয় শিক্ষক ফোরামের প্রায় অর্ধশত জেলা প্রতিনিধিগণ বক্তব্য রাখেন।