বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৫৭ পূর্বাহ্ন

আশুলিয়ায় ইপিজেড টু ভাদাইল সড়কের বেহাল দশা, জনদুর্ভোগ চরমে

শহিদুল্লাহ সরকার, সাভার সংবাদাতা 
  • আপডেট টাইম: শনিবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২১
বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার অদূরে সাভারের আশুলিয়া  শিল্প গনরী এলকা এখানে প্রায় কয়েক ‘শ গার্মেন্টেস থাকায় এই এলাকাটি জন বহুল এলকা হিসেবে পরিচিত। তাই এই আশুলিয়ায় কয়েক লক্ষ মানুষের বসবাস।এখানে (৫) টি ইউনিয়ন রয়েছে এদের মধ্যেগুরুত্বপূর্ণ ইউনিয়ন ধামসোনা। এখানে রয়েছে বাংলাদেশের প্রধান উৎপাদন মুখী রপ্তানি শিল্প কলকারখানা ডি ই পি জেট। উক্ত ডি ই পি জেটে প্রায় কয়েক লক্ষ গার্মেন্টেস শ্রমিক চাকুরী করে। আর তাদের যাতায়াতের সুবিধার্থে থাকতে হয় ডি ই পি জেট এর আশেপাশে এলাকাগুলোতেই। আর এই এলাকায় ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় সাধারণ মানুষের চলাচল অনুপযোগী হয়ে উঠেছে। বিশেষ করে ধামসোনা ইউনিয়নের (৬)নং ওয়ার্ড ভাদাইল টু রপ্তানি  রাস্তাটি চলাচলের জন্য  একেবারেই  অনুপযোগী হয়ে উঠেছে। এই রাস্তাটির পাশ দিয়ে রয়েছে পরমাণুবিক গবেষণার দেয়াল যার ফলে রাস্তাটি প্রসস্থ করা সম্ভব  নয় বলে জানাজায়। আর এই একটি মাত্র শুরু রাস্তা দিয়ে প্রতিনিয়ত ভাদাইল, সাদু মার্কেট,পবনারটেক শাহ্জাহান মার্কেট এর প্রায় (৫)লক্ষ গার্মেন্টেস শ্রমিক কর্ম স্থলে যায়। আর একটু বৃষ্টি হলেই এই রাস্তাটির উপর জমে হাটু সমান পানি, তাই প্রতিনিয়ত রিকশা, অটু রিকশা, ইজিবাইক এর মত যানবাহন গুলি দূর্ঘটনার শিকার হয়। দুঃখ জনক হলেও সত্য এই রাস্তাটি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক,ইলেকট্রনি, প্রিন্ট মিডিয়া, অনলাইন নিউজ পোর্টালে বেশ কয়েকবার প্রতিবেদন করেও কোন লাভ হয়নি, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিগণ রাস্তার বেহাল দশা দেখেও না দেখার ভান করে এড়িয়ে যাচ্ছে, এখনো কোন প্রকার সংস্কারের উদ্যোগ নেয়নি, ভাদাইল টু রপ্তানি এক থেকে দেড় কিলোমিটার রাস্তাটির।আশুলিয়ার ধামসোনা  ইউনিয়নের (৬)নং ওয়ার্ডে  বসবাসরত অসহায় হতদরিদ্র গার্মেন্টেস শ্রমিক সহ সচেতন মহলের প্রানের দাবি এই রাস্তাটি যাতায়াতের উপযোগী করা হউক।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৩-২০২১
themesba-lates1749691102