উত্তরা নিউজ উত্তরা নিউজ
অনলাইন রিপোর্ট


উত্তরার লুবানা জেনারেল হাসপাতালে ৪ টাকার ওষুধ ১০০ টাকা, জরিমানা ২০ লাখ






উত্তরার অভিজাত হাসপাতাল লুবানা জেনারেল হাসপাতালে চার টাকায় ওষুধ ১০০ টাকায় বিক্রি, অপারেশন থিয়েটারে নোংরা পরিবেশ ও মেয়াদউত্তীর্ণ রি-এজেন্ট পাওয়ায় ২০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

সোমবার বিকালে অভিযান চালিয়ে এ জরিমানা করেন র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম।

অভিযান শেষে সারওয়ার আলম বলেন, ‘হাসপাতালটির অপারেশন থিয়েটারে মেয়াদউত্তীর্ণ বিভিন্ন সার্জিক্যাল জিনিস পাওয়া গেছে। এছাড়া খুবই নোংরা পরিবেশে তারা বিভিন্ন অপারেশন করছিল। ওটিতে তারা খাওয়া দাওয়া পর্যন্ত করত।’

‘রোগীদের বিভিন্ন পরীক্ষার যে রিপোর্ট তারা তৈরি করত সেখানে একজন ডাক্তারের নয়টি স্বাক্ষর পাওয়া গেছে। হাসপাতালের ফার্মেসিতে ৩৪ টাকার মরফিন ওষুধ বিক্রি হচ্ছিলো ৩৪০ টাকায়। যেটা দশগুণ বেশি দামে বিক্রি করা হত। চার টাকা দামের একটা ওষুধ তারা একশ টাকায় বিক্রি করছিল।’

‘তবে ডেঙ্গু রোগীদের পরীক্ষায় কোন খারাপ কিছু দেখা যায়নি। এসব অভিযোগে প্রতিষ্ঠানটিকে ২০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।’

এর আগে আজ দুপুরে মানুষের শরীর থেকে রক্ত বা অন্য নমুনা নিয়ে তা নিয়ম অনুযায়ী পরীক্ষা না করে মনগড়া প্রতিবেদন দেওয়ার প্রমাণ মিলেছে রাজধানীর উত্তরা ক্রিসেন্ট হাসপাতালে। কখনো কখনো পরীক্ষা না করেই প্রতিবেদন দেওয়া হতো।

কোনো পরীক্ষার জন্য ৭২ বা ৪৮ ঘণ্টা সময় লাগলেও নমুনা সংগ্রহের ১২ ঘণ্টা পরেই তৈরি করা রিপোর্ট রোগীদের সরবরাহ করার প্রমাণ মিলেছে। ফলে রোগীর শরীরে প্রকৃত চিত্র উঠে আসত না। এতে তার সঠিক চিকিৎসাও হতো না। এই অভিযোগে প্রতিষ্ঠানটিকে ১৭ লাখ টাকা জরিমানা করেছে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

সূত্র: বাংলাদেশ টুডে.নেট