❝অবিবাহিত যুগল হোটেলে এক কক্ষে থাকা অপরাধ নয়❞


» কামরুল হাসান রনি | ডেস্ক ইনচার্জ | | সর্বশেষ আপডেট: ১০ ডিসেম্বর ২০১৯ - ১০:৪৭:৩৭ পূর্বাহ্ন

আবাসিক হোটেলের কক্ষে কোনো অবিবাহিত যুগলের একসঙ্গে অবস্থান কিংবা রাত যাপন করা অপরাধ নয়।

শুক্রবার এক রায়ে এমনটাই জানালো ভারতের তামিলনাডু রাজ্যের হাইকোর্ট। শুধু অবিবাহিত যুগলকে এক কক্ষে অবস্থানের সুযোগ দেয়ার কারণে কোনো হোটেল বন্ধ করে দেয়াকে বে-আইনি বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে আদালত।

মাদ্রাজ হাইকোর্ট নামে পরিচিত ওই আদালতের বিচারপতি এম এস রমেশ রায় বলেন, “দুজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ যখন ‘লিভ-ইন’ করেন তখন তো তা অ’বৈধ নয়, একইভাবে অবিবাহিত যুগলদের কোনো হোটেল কক্ষে একসঙ্গে অবস্থান করা ফৌজদারী অপরাধ হতে পারে না।”

দেশে এমন কোনো আইন নেই বলে বিচারপতি তার পর্যবেক্ষণে জানিয়েছেন।

অবিবাহিত যুগলকে একসঙ্গে অবস্থানের ‘অপরাধে’ চলতি বছরের জুনে রাজ্যের কোয়েম্বাটোর জেরার একটি লজ সিলগালা করে দেয় প্রশাসন। লিখিত কোনো নির্দেশনা ছাড়াই জেলা প্রশাসক কে রাজমনির নির্দেশে ওই লজটি সিলগালা করা হয়। একই সঙ্গে একই অভিযোগে আটক করা হয় কয়েকজন তরুণ-তরুণীকে।

জানা যায়, দেশটির একটি রাজনৈতিক দলের নারী শাখার পক্ষ থেকে ওই লজের বিরু’দ্ধে অভিযোগ দাখিল করা হয়েছিল। তাদের অভিযোগ, শুধু পরিচয়পত্র দেখেই অবিবাহিত তরুণ-তরুণীদের ঘর ভাড়া দিচ্ছে লজটির কর্তৃপক্ষ। যা ‘সংস্কৃতির’ পরিপন্থী। তাই ওই লজের বিরু’দ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান তারা।

অভিযোগ পাওয়ার পরদিন সকালে রাজস্ব বিভাগ ও জেলা পুলিশের একটি দল লজটিতে অভিযান চালায়। কয়েক ঘণ্টার অভিযানে সমস্ত নথি খতিয়ে দেখে সেটি সিলগালা করে দেয় স্থানীয় প্রশাসন। এমন অভিযানের আইনি ভিত্তি চ্যালেঞ্জ করে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিল লজটির মালিক পক্ষ।

তারপর বিষয়টি আদালত পর্যন্ত গড়ায়। দীর্ঘ শুনানির পর তামিলনাডুর হাইকোর্ট মামলার রায়ে জানিয়েছে, শুধু অবিবাহিত যুগলদের থাকতে দেয়ার কারণে কোনো আবাসিক হোটেল, লজ বা অ্যাপার্টমেন্ট সিলগালা করে দেয়ার আইনগত কোনো ভিত্তি নেই। কেননা এসব স্থানে কোনো অবিবাহিত যুগলের রাত্রী যাপনে বাধা নেই আইনে।