উত্তরা নিউজ উত্তরা নিউজ
অনলাইন রিপোর্ট


৪৮টি ইন্টারনেট সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানের (আইএসপি) লাইসেন্স বাতিল






৪৮টি ইন্টারনেট সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানের (আইএসপি) লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে। লাইসেন্স নবায়ন না করায় এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

বিটিআরসির লিগ্যাল অ্যান্ড লাইসেন্সিং বিভাগের পরিচালক এমএ তালেব হোসেন স্বাক্ষরিত পৃথক দুইটি আদেশে একথা জানানো হয়েছে। এছাড়াও আগামী এক মাসের মধ্যে সব পাওনা পরিশোধের নির্দেশ দিয়ে বলা হয়েছে, অন্যথায় আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।

আদেশে আরও বলা হয়েছে, আইএসপি লাইসেন্সের শর্তানুযায়ী লাইসেন্সের মেয়াদ পাঁচ বছর উত্তীর্ণ হওয়ার ১৮০ দিন আগেই পরবর্তী মেয়াদের জন্য নবায়ন করতে হবে। মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার পরও নবায়ন না করায় এসব আইএসপির লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে।

বাতিল হওয়া ন্যাশনওয়াইড প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে— ইনোভেটিভ অনলাইন লিমিটেড, এশিয়া ইনফোসিস লিমিটেড, এম/এস আইডিএস বাংলাদেশ, আইএস প্রোস লিমিটেড, পলিট্রেড ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেড, আইডিয়া নেটওয়ার্ক অ্যান্ড কমিউনিকেশন লিমিটেড, নিউ জেনারেশন গ্রাফিক লিমিটেড, জিনিয়াল ব্রডব্যান্ড লিমিটেড, ইসিনেট লিমিটেড, এক্স-লিঙ্ক লিমিটেড, ওয়েসটেক লিমিটেড, নেটজেন নেটওয়ার্ক লিমিটেড, স্কয়ার ইনফোসিস্টেম লিমিটেড, ইনকমআইটি সলুশ্যন, অ্যাপল কমিউনিকেশন লিমিটেড, প্রিসমা ডিজিটাল নেটওয়ার্ক লিমিটেড, এম/এস মহসিন খান ব্রিক ফিল্ড, অ্যাঞ্জেল ড্রপস লিমিটেড, ইয়ারটেল সার্ভিস, ডেলটা সফটওয়্যার অ্যান্ড কমিউনিকেশন লিমিটেড, ম্যাংগো টেলিসার্ভিস লিমিটেড, আরগো ভেঞ্চার প্রাইভেট লিমিটেড, আফতাব আইটি লিমিটেড এবং প্রিতী ইন্টারন্যাশনাল (প্রা.) লিমিটেড।

অপরদিকে সেন্ট্রাল জোন আইএসপি প্রতিষ্ঠানগুলো হলো— সৌরব আইটি লিমিটেড, সাদিয়া ইন্টারন্যাশনাল কোম্পানি,ক্যাবল ইন্টারটেইনমেন্ট, রাফিন স্যাটেলাইট, মেসার্স প্রদেশটা লিমিটেড, মেসার্স জেএফ অপটিক্যাল সার্ভিস, মেসার্স রেডিসন টেকনোলজিস, মিরাক কোম্পানি লিমিটেড, জিফোর কমিউনিকেশন লিমিটেড, নৈরথ অনলাইন লিমিটেড, আইকম বাংলাদেশ লিমিটেড, টাইগার টেলিকমিউনিকেশন কোম্পানি, ম্যাক ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেড, অরেঞ্জ টেলিকম বিডি, আলভি এন্টারপ্রাইজ, আইটি কানেক্ট লিমিটেড, মোসার্স ডেভেলপমেন্ট ইনফ্রাস্ট্যাকচার ফর আইটি অ্যাপলিকেশনস, ঢাকা ব্রডব্যান্ড নেটওয়ার্ক লিমিটেড, গ্লোবাল টেকনোলজি লিমিটেড, মেসার্স লিংক লিমিটেড, মেসার্স লাইভ নেটওয়ার্ক অ্যান্ড সিস্টেম, মোসার্স মিডিয়া অ্যান্ড মাল্টিমিডিয়া ও টেকনো এশিয়া ইনফোটেক।