সুবর্ণচরে ধর্ষণের অভিযোগে মুঠোফোন মেকানিক আটক


» কামরুল হাসান রনি | ডেস্ক ইনচার্জ | | সর্বশেষ আপডেট: ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ - ১১:২৪:৫৪ পূর্বাহ্ন

মুজাহিদুল ইসলাম সোহেল, নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ নোয়াখালীর সুবর্ণচরে উত্তর বাগ্গ্যা গ্রামে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ১৬ বছর বয়সি এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার বিকেলে তরুণী বাদি হয়ে আটক ইব্রাহীম খলিল(৩০)কে আসামি করে চর জব্বর থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে অভিযান চালিয়ে সমিতি বাজার এলাকা থেকে অভিযুক্ত ইব্রাহীম খলিলকে আটক করেছে চরজব্বার থানা পুলিশ।

সে উপজেলার ১নং চর জব্বর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের আবদুস সাত্তার’র ছেলে। ভুক্তভোগীর পরিবার ও মামলার এজাহারে জানা যায়, ওই তরুণী বিদ্যালয়ে আসা যাওয়ার পথে বিভিন্নভাবে বিরক্ত করতো ইব্রাহিম। পরে তার দোকান থেকে মোবাইলে রিচার্জ করতে গেলে ইব্রাহিম তার নাম্বার নিয়ে নেয়। এরসুবাধে তাদের মধ্যে কথাবার্তার একপর্যায়ে একটা সম্পর্ক গড়ে উঠে। এর মধ্যে গত ৭-৮মাস আগে ওই তরুণী ইব্রাহিমের দোকানে মোবাইলে রিচার্জ করতে গেলে ইব্রাহিম তাকে দোকানের পিছনে গিয়ে বসতে বলে। তরুণী দোকানের পিছনে গিয়ে বসলে সামনে থেকে দোকান বন্ধ করে ভিতরে গিয়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই তরুণীকে ধর্ষণ করে সে।

এরকিছুদিন পর পুনঃরায় তরুণীর সাথে শারিরিক সম্পর্কে মিলিত হয় ইব্রাহিম খলিল। গত তিন মাস আগে লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি উপজেলার বিবিরহাট এলাকায় বিয়ে হয় ওই তরুণীর। কয়েকদিন আগে তার শারিরিক অবস্থা দেখে সন্দেহ হলে পরিবারের লোকজন তাকে ডাক্তারি পরীক্ষা করে। ডাক্তারি রিপোর্ট হাতে পেয়ে দেখা যায় সে ৮মাসের অন্তঃসত্ত্বা। পরে তাকে জিজ্ঞাসাবাদে ইব্রাহিম তাকে বিয়ের প্রলোভনে একাধিক ধর্ষণ করেছে বলে জানায় সে। এঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে অন্তঃসত্ত্বা বাদী হয়ে ইব্রাহিমকে আসামী করে চরজব্বার থানায় একটি মামলা দায়ের করে।

চর জব্বর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি সাহেদ উদ্দিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, কিশোরীর সঙ্গে আটক যুবক ইব্রাহীমের আত্মীয়তার সম্পর্ক রয়েছে। একাধিকবার বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তরুণীর বাড়িতে ও অভিযুক্তের মুঠোফোন মেকানিক দোকানে ধর্ষণের এ ঘটনা ঘটে। বর্তমানে ভুক্তভোগী তরুণী ৮ মাসের অন্তঃস্বত্ত্বা। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী কিশোরী আটককৃত যুবককে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন। আসামিকে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।