সীমান্তে অব্যাহত হত্যাকাণ্ডের জন্য সরকারের নতজানু ভারত নীতিই দায়ী: গাজী আতাউর রহমান


» উত্তরা নিউজ ডেস্ক জি.এম.টি | | সর্বশেষ আপডেট: ২৪ জানুয়ারি ২০২০ - ০৯:০১:৪৫ অপরাহ্ন

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান বলেন, আমরা স্বাধীনতার ৪৯ বছরেও স্বাধীনতার প্রকৃত স্বাদ উপভোগ করতে পারিনি। প্রতিনিয়ত বাংলাদেশীরা ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ কর্তৃক হয়রানি এবং নির্বিচারে হত্যার শিকার হচ্ছে। বিএসএফ বিগত দুই দিনে ৫ জন বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা করেছে এবং গত এক দশকে এই সংখ্যা ২৯৪ এ দাঁড়িয়েছে। তিনি আরো বলেন, সীমান্তে অব্যাহত হত্যাকা-ের জন্য সরকারের নতজানু ভারত নীতিই দায়ী।

আজ ২৪ জানুয়ারী‘২০ ইং শুক্রবার ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি এম. হাছিবুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে ঢাকার আত-ত্বরীক মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত “ক্যাম্পাস লিডার্স কনফারেন্স ২০২০” এ প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথা বলেন।

“ক্যাম্পাস লিডার্স কনফারেন্স ২০২০” এ সভাপতির বক্তব্যে কেন্দ্রীয় সভাপতি এম. হাছিবুল ইসলাম বলেন, ক্যাম্পাসে শান্তি-শৃঙ্খলা ও পড়াশোনার সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে ক্যাম্পাস প্রশাসন ও সরকারের প্রতি আহবান জানাচ্ছি।

তিনি আরো বলেন, প্রশাসনের প্রত্যক্ষ প্রশ্রয়ে ছাত্রলীগ গেস্টরুম নির্যাতন চালিয়ে যাচ্ছে। আবরারের দগদগে ক্ষত না শুকাতেই আবারো সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের ৪ জন শিক্ষার্থীর উপর ছাত্রলীগ বর্বরোচিত হামলা চালায়। যা আরেকটি আবরার হত্যার চিত্রায়নেরই নামান্তর। ইশা ছাত্র আন্দোলন বাংলাদেশে আর কোন আরবার হত্যার পূণর্মঞ্চায়ন হতে দিবে না। ঢাবিতে শিক্ষার্থীদের উপর নির্যাতন বন্ধ না করলে ছাত্র সমাজকে সাথে নিয়ে ছাত্রলীগকে কঠোরভাবে প্রতিহত করা হবে, ইনশাআল্লাহ।

ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের সেক্রেটারি জেনারেল নূরুল করীম আকরাম এর সঞ্চালনায় সারাদেশ থেকে আগত কেন্দ্র নিয়ন্ত্রিত পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়, প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়, সরকারি কলেজ, আলিয়া মাদ্রাসা ও কওমি মাদ্রাসা নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে আয়োজিত কনফারেন্সে বার্ষিক পরিকল্পনা ও ক্যাম্পাসে কাজের কৌশল প্রণয়ন করা হয়। কনফারেন্সে আরো উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মুহাম্মাদ আব্দুল জলিল, জয়েন্ট সেক্রেটারি জেনারেল একেএম আব্দুজ্জাহের আরেফী, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় সম্পাদক এম.এম. শোয়াইব, প্রচার ও আন্তর্জাতিক সম্পাদক কে এম শরীয়াতুল্লাহ, কলেজ সম্পাদ এম এ হাসিব গোলদার, কওমি মাদরাসা সম্পাদক নূরুল বশর আজিজী, আলিয়া মাদরাসা সম্পাদক শেখ ইহতেশাম বিল্লাহ আজিজীসহ প্রমূখ।