সিটি নির্বাচনে মাঠে থাকবে ইলেকশন মনিটরিং ফোরামের ৫০০ পর্যবেক্ষক


» মুহাম্মদ গাজী তারেক রহমান | উত্তরা নিউজ, স্টাফ রিপোর্টার | সর্বশেষ আপডেট: ২৫ জানুয়ারি ২০২০ - ০৭:১৫:৩৭ অপরাহ্ন

মো. রবিউল ইসলাম


তথ্য প্রযুক্তির বিশ্বে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা ও সাধারণ জনগনের সঠিক মতামত প্রয়োগের ক্ষেত্রে এবং ভোটে কারচুপি ঠেকাতে আসন্ন ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার সঠিক সিদ্ধান্ত। ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে কোন প্রকার পক্ষপাতমূলক আচরণ করা নির্বাচন কমিশনের উচিত হবেনা। সাধারণ মানুষের ভোটাধিকার প্রয়োগের ক্ষেত্রে নির্বাচন কমিশনকে কঠোর ভূমিকা রাখতে হবে। আচরণবিধি লঙ্গনকারী যেই হোকনা কেন তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া নির্বাচন কমিশনের দায়িত্ব। এক্ষেত্রে সরকার ও প্রশাসনের উচিত নিরপেক্ষ থাকা।

বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন কর্তৃক নিবন্ধিত ৩১টি এনজিও এবং ২৬ টি সুপ্রতিষ্ঠিত সংস্থার সমন্বয়ে গঠিত বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ নির্বাচন পর্যবেক্ষন প্ল্যাটফর্ম ইলেকশন মনিটরিং ফোরামের উদ্যোগে নির্বাচন পর্যবেক্ষক প্রতিনিধিদের প্রশিক্ষণ কর্মশালায় উপরোক্ত মন্তব্য করেন ইলেকশন মনিটরিং ফোরামের নির্বাহী পরিচালক ও সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশনের মহাসচিব অধ্যাপক মোহাম্মদ আবেদ আলী। ইলেকশন মনিটরিং ফোরামের সদস্য ১০টি সংগঠনের পাঁচ শতাধিক পর্যবেক্ষক ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মাঠে সক্রিয় ভাবে পর্যবেক্ষণে থাকবে এবং নির্বাচনের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে ও ফলাফল বিষয়ে ২ ফেব্রুয়ারী সকাল ১১:০০ টায় ঢাকা জাতীয় প্রেস ক্লাবে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রাথমিক প্রতিবেদন প্রকাশ করবে বলে সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক জানান।

অদ্য ২৫ই জানুয়ারী ২০২০ তারিখ শনিবার সকাল ১১:০০ টায় ঢাকা জাতীয় প্রেস ক্লাবে ইলেকশন মনিটরিং ফোরামের নির্বাহী পরিচালক অধ্যাপক মোহাম্মদ আবেদ আলী‘র সভাপতিত্তে অনুষ্ঠিত ‘‘নির্বাচন পর্যবেক্ষক প্রশিক্ষণ কর্মশালায়” আলোচনা করেন সাবেক নির্বাচন কমিশনার ও ইলেকশন মনিটরিং ফোরামের পরিচালক মোঃ শাহ্নেওয়াজ, জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক, ইভিএম বিশ্লেষক ও কানাডিয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মুহাম্মদ মাহফুজুল ইসলাম, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, ইএমএফ পরিচালক প্রফেসর ড. হাবিবুর রহমান, প্রফেসর ড. আব্দুল জব্বার। উক্ত প্রশিক্ষণ কর্মশালায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্তিত ছিলেন সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশনের কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি ড. ইসলাম উদ্দিন, ফোরামের সমন্বয়কারি মোহাম্মদ মনির হোসেন, ইএমএফ পরিচালক মো: তানভিরুল ইসলাম, সুলতানা রাজিয়া শিলা, তৃণমূল উন্নয়ন সংস্থার নির্বাহী পরিচালক খন্দকার ফারুক আহম্মেদ, আইন সহায়তা কেন্দ্র-আসকের ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী পরিচালক নাজমুন নাহার, ইয়ুথ ফর হিউম্যান রাইটস ইন্টারন্যাশনাল ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক, মো: এরশাদ হোসেন, ফোরাম ফর ডেভেলপমেন্ট এসোসিয়েশনের নির্বাহী পরিচালক মো: মুরাদ নবী, সেবকের সভাপতি খাঁন মোঃ বাবুল সহ প্রমুখ।