সর্বনাশ আগুনে হাত দিয়েছি !

সাহেদ প্রসঙ্গে বললেন জনপ্রিয় উপস্থাপক আমিরুল মোমেনীন মানিক

» মুহাম্মদ গাজী তারেক রহমান | উত্তরা নিউজ, স্টাফ রিপোর্টার | সর্বশেষ আপডেট: ০৯ জুলাই ২০২০ - ০৮:৩১:৪১ অপরাহ্ন

২০০৭ সালের কথা | তখন ওয়ান ইলেভেনের সময় | আমি বৈশাখী টেলিভিশনের স্টাফ রিপোর্টার | এখানে জানিয়ে রাখা ভালো, সাংবাদিকতার পাশাপাশি দীর্ঘদিন ধরে আমি বিজ্ঞাপন ও তথ্যচিত্র নির্মাণ করি |

গত ১৫ বছরে আমি প্রায় ১০০টি কর্পোরেট তথ্যচিত্র নির্মাণ করেছি |
এই কাজটি না করলে ঢাকা শহরে আমার টিকে থাকা অনেক কষ্টকর হতো |

যাই হোক, সেই সময় একজন গণমাধ্যমকর্মী মারফত জানতে পারি, বিডিএস কুরিয়ার সার্ভিস নামের একটি প্রতিষ্ঠান বিজ্ঞাপন নির্মাণের লোক খুঁজছে | তথ্য পেয়ে আমরা প্রস্তাবনা উপস্থাপন করি | ৯০ হাজার টাকার চুক্তিতে কাজটা আমাদেরকে দেয় তারা | ১০ হাজার টাকা অগ্রীম পেলাম | তখন নতুন কাজ করছি, এটাকেই সোনায় সোহাগা মনে করলাম | নির্দিষ্ট সময়ে আমরা বিজ্ঞাপনচিত্র বুঝিয়ে দিলে তারা সন্তুষ্ট হলো | বিডিএস এর কর্তারা জানালেন, পরে এসে বকেয়া বিল নিয়ে যাবেন |

এরপর বারবার ধর্না দিতে লাগলাম টাকার জন্য | কিন্তু দেই-দিচ্ছি বলে ৩ মাস চলে গেল | ৬ মাস পেরিয়ে গেলে আমি নিজেই হাজির হলাম ধানমন্ডির বিজিবি সদরদপ্তরের উল্টোদিকে বিডিএস কুরিয়ার সার্ভিসের অফিসে |

তারা আমাকে বললো, এখন টাকা পাবেন না | স্যার, পরে আসতে বলেছেন | আমি বললাম, কোন্ স্যার | উত্তর এলো, ব্যবস্থাপনা পরিচালক | আমি বললাম, দেখা করবো তার সঙ্গে, টাকা না নিয়ে আজ যাবোনা |

ভেতর থেকে আমার সব কথা শুনছিলেন এমডি সাহেব |
আমার জোরালো কণ্ঠ শুনে, চিৎকার করতে করতে বেরিয়ে এলেন |
-এই মিয়া, বলছেনা টাকা দেওয়া হবেনা, জোর খাটাচ্ছেন কেন, কিসের টাকা পান আপনি ?
আমি ওয়ার্কঅর্ডার দেখিয়ে বললাম, টাকা না নিয়ে যাবেনা আজকে |
এমডি সাহেব গলা উঁচিয়ে বললেন, এ্যাই আমাকে চিনস, আমি সাহেদ, আর্মির সাবেক মেজর, হাত-পা ভেঙ্গে রাস্তায় ফেলে দেবো !
আমি বললাম, ভাঙ্গেন, সমস্যা নাই, টাকা না নিয়ে যাবোনা |

তখন তার লোকজনকে সে বললো, এ্যাই ওকে তোরা ওই রুমে বসিয়ে রাখ | টাকা যখন চাইছে, তখন টাকা দিয়েই ওরে বিদায় করমু |
বিডিএস এর লোকজন আমাকে একটি কক্ষে নিয়ে বসিয়ে রাখলো |
আমি বললাম, সমস্যা নাই | টাকা না নিয়ে যাবোনা |
ঘণ্টা খানেক সময় পার হলো |
এরপর আবার আসলো সাহেদ |
১০ হাজার টাকা আমার মুখে ছুঁড়ে মেরে বললেন, এই নেন আপনার টাকা |
আমি বললাম, আপনার কাছে পাবো ৮০ হাজার, দিচ্ছেন ১০ হাজার | টাকাটা উল্টো তার মুখে ছুঁড়ে দিয়ে তড়িৎ গতিতে নিচে নেমে গেলাম | পেছন থেকে শুনতে পেলাম, সাহেদ বলছে, এই ধর মানিককে |

দু’দিন পরের ঘটনা |
পত্রিকা খুলে দেখি, সাহেদের ছবি । বিডিএস কুরিয়ার সার্ভিসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান | সাহেদের একপাশে বসে আছেন তৎকালীন সেনাপ্রধান জেনারেল মইন ইউ আহমেদ, অন্যপাশে সংস্কারপন্থী বিএনপি নেতা লে.জে.(অবসরপ্রাপ্ত) মাহবুবুর রহমান |

ছবিটা দেখে চুপসে গেলাম |
ভাবলাম, সর্বনাশ আগুনে হাত দিয়েছি !