উত্তরা নিউজ উত্তরা নিউজ
অনলাইন রিপোর্ট


সচিবের অপেক্ষায় ফেরি, অ্যাম্বুলেন্সে মৃত্যু: তদন্ত কমিটি গঠন






সরকারের একজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তার পারাপারের জন্য কাঁঠালবাড়ি ঘাট থেকে নির্ধারিত সময়ে ফেরি না ছাড়ায় অ্যাম্বুলেন্সে রোগীর মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করেছে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়।

সোমবার (২৯ জুলাই) নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব শাহনেওয়াজ দিলরুবা খানকে দুই সদস্যের কমিটির প্রধান করা হয়েছে। কমিটির অপর সদস্য হলেন, নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব শাহ হাবিবুর রহমান হাকিম। কমিটিকে আগামী সাত কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে।

গতকাল রোববার বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ অনুযায়ী, মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয় নড়াইলের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র তিতাস ঘোষ। উন্নত চিকিৎসার জন্য অ্যাম্বুলেন্সে তাকে ঢাকায় আনা হচ্ছিল। কিন্তু নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব আব্দুস সবুর মণ্ডলের গাড়ি না আসায় ফেরি ছাড়তে তিন ঘণ্টা বিলম্ব হয়। এ অবস্থায় ঘাটে ফেরি ছাড়ার অপেক্ষায় অ্যাম্বুলেন্সে মৃত্যু হয় স্কুলছাত্র তিতাসের। মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ি ১ নম্বর ফেরিঘাটে গত বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

তবে জানা গেছে, আব্দুস সবুর মণ্ডল নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় নয়, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে কর্মরত রয়েছেন। সংবাদটি সম্পূর্ণ সঠিক নয় দাবি করে জনমনে ভুল বোঝাবুঝির অবসানের লক্ষ্যে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে ব্যাখ্যাও দিয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে।

এতে বলা হয়, বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্পোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) ফেরিতে যাত্রী ও পণ্য পরিবহনের সেবায় নিয়োজিত। বিআইডব্লিউটিসি বর্তমানে প্রবল স্রোতের মধ্যেও ফেরি সার্ভিস চালু রেখেছে। তারা সবসময় অ্যাম্বুলেন্সসহ অন্যান্য যানবাহন পারাপারে জরুরি সার্ভিস প্রদান করে থাকে।

‘সংবাদে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আব্দুস সবুর মণ্ডল ও তার গাড়ির বিষয়ে বলা হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় ও এর অধীনস্থ সংস্থায় আব্দুস সবুর মণ্ডল নামে কোনো অতিরিক্ত সচিব বা যুগ্মসচিব বা কোনো অফিসার নেই। সেদিন নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় ও এর অধীনস্থ সংস্থার ওই নামে কেউ কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া রুটে ফেরি পারাপার হননি’ বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়।

উত্তরা নিউজ/এস,এম,জেড