সংগঠনগুলো ক্ষোভ ঝেড়েছে, শুনেই গেলেন জাকারবার্গ


» Masud Rana | | সর্বশেষ আপডেট: ০৮ জুলাই ২০২০ - ০৪:৩৫:১৮ অপরাহ্ন

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের হুমকিমূলক পোস্টের ব্যাপারে কোনো পদক্ষেপ না নেয়ায় ফেসবুকের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে অসংখ্য প্রতিষ্ঠান। এর আগে ফেসবুক বর্জনের আহবান জানিয়ে #StopHateforProfit ক্যাম্পেইন শুরু করে এডিএল, এনএএসিপি ও কালার অব চেঞ্জ নামের কয়েকটি সংগঠন। তাদের সঙ্গে জুম প্ল্যাটফর্মে ভার্চুয়াল মিটিং করেছে ফেসবুক।

সংগঠনগুলোর সঙ্গে মিটিয়ে ফেসবুক থেকে বেশ কয়েকজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা অংশ নেন। এর মধ্যে অন্যতম ফেসবুক সিইও মার্ক জাকারবার্গ ও চিফ অপারেটিং অফিসার শেরিল স্যান্ডবার্গ। ঘণ্টাখানেকের বেশি সময় ধরে আলোচনা চললেও কোনো সমাধান বের হয়নি। উল্টো মিটিং শেষে ফেসবুককে বর্জনের ডাক দেয়া সংগঠনের সদস্যরা ক্ষোভ ঝেড়েছেন। আর তা শুনেই গেলেন জাকারবার্গ।

সংগঠনগুলোর প্রধানরা জানিয়েছে, এখনো বিজ্ঞাপনদাতাদের বয়কটকে গুরুত্ব দিচ্ছে না ফেসবুক। আমরা কী চাচ্ছি সে বিষয়ে কথা না বলে গৎবাঁধা বুলি আওড়ে গেছেন। তাদের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে যে সব কথা থাকে এই মিটিংয়ে তার চেয়ে ভিন্ন কিছু ছিল না।

ফেসবুক এক্সিকিউটিভদের সামনে দশ দাবি তুলে ধরেন এডিএল, এনএএসিপি ও কালার অব চেঞ্জ নামের কয়েকটি সংগঠন। দাবিগুলোর মধ্যে ছিল- নাগরিক অধিকার বিষয়ে কাজ করেছেন এমন এক্সিকিউটিভ নিয়োগ, বিনা হস্তক্ষেপে নিয়মিত অডিট রিপোর্ট পেশ করতে দেয়া, কমিউনিটি স্ট্যান্ডার্ডের নীতিমালা আপডেট করা।

দশ দাবির মধ্যে শুধু নাগরিক অধিকার বিষয়ে অভিজ্ঞ ব্যক্তিকে এক্সিকিউটিভ হিসেবে নিয়োগ দিতে রাজি হয়েছেন জাকারবার্গ ও স্যান্ডবার্গ। বাকি ইস্যুতে তারা আগ্রহ দেখাননি। তবে পুরো কথা শুনেই গেছেন তারা।