শ্রীপুরে নদীর পাড়ের মাটি কাটায় ঝুঁকিতে রহমত আলী সেতু


» কামরুল হাসান রনি | ডেস্ক ইনচার্জ | | সর্বশেষ আপডেট: ০৭ জানুয়ারি ২০২০ - ০৬:৫৯:২৩ অপরাহ্ন

রাকিবুল হাসান : গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার বরমী ইউনিয়নের বরমা এলাকায় বানার নদীর উপর নির্মিত এ্যাডঃ রহমত আলী সেতু সংলগ্ন এলাকা থেকে ভেঁকু দিয়ে মাটি কেটে নেয়ায় হুমকির মুখে পড়েছে সেতুটি। গাজী অটো ব্রিকস নামের একটি ইটভাটায় বানার নদীর পাড় কেটে ইটা তৈরীর কাজে মাটি ব্যবহার করা হচ্ছে।
সরেজমিন দেখা যায়, উপজেলার বরমী ইউনিয়নের বরমা এলাকায় বানার নদীর উপর নির্মিত এ্যাডঃ রহমত আলী সেতুটির দক্ষিন পাশে বানার নদীর তীর ঘেষে গড়ে উঠা গাজী অটো ব্রিকস নামের একটি ইট ভাটা মাটি কেটে নিচ্ছে। আনুমানিক ৮থেকে ১০ফিট গর্ত করে প্রায় ১০০ফিট জায়গা থেকে মাটি কেটে ইটভাটার কাজে ব্যবহার করেছে। এতে শ্রীপুর উপজেলার চারটি ও কাপাসিয়া উপজেলায় চারটি ছাড়াও ময়মনসিংহের গফরগাঁও ও কিশোরগঞ্জ জেলা সদরের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন হওয়া এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের স্বপ্নে বাস্তবায়িত সেতুটি হুমকির মুখে পড়ছে।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক এলাকাবাসী জানান, গাজী অটো ব্রিকস নামের ইট ভাটা দীর্ঘদিন যাবৎ নদীর পাড়ের মাটি কেটে তাদের কাঁচামাল হিসেবে ব্যাবহার করছে। সেতুর পাশ থেকে এমনভাবে মাটি কেটে নিতে থাকলে সেতুটি হুমকির মুখে পড়বে। বর্ষা মৌসুমে পানি উঠে ফসলি জমি নষ্ট হবে।
নদীর পাড় কাটার ব্যাপারের জানতে চাইলে গাজী অটো ব্রিকসের ম্যানেজার জহিরুল ইসলাম আকাশ, মুঠো ফোনে জানান, আমারা কোন নদীর পাড় কাটিনি। আমাদের কেনা জায়গা নদীর সিমানায় পরেছে। আমরা আমাদের জায়গায় কাজ করেছি।
এ ব্যাপারে শ্রীপুর উপজেলা উপ-সহকারী প্রকৌশলী হেলাল উদ্দিন বলেন, সেতুর আশে পাশে সেতুর ক্ষতিহয় এরকম কোন জায়গা থেকে কেউ মাটি কাটতে পারবে না।
এ ব্যাপারে শ্রীপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) এম ডি শামসুল আরিফীন জানান, আপনাদের মাধ্যমে জানতে পেরে ওই ইট ভাটার ম্যানেজারের সাথে যোগাযোগ করে কাগজপত্র নিয়ে আসতে বলেছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
উল্লেখ্য, শ্রীপুর ও কাপাসিয়া উপজেলার সিমানায় বানার নদী উপর নির্মিত সেতুটি ওই এলাকার মানুষের বহু দিনের স্বপ্ন ছিলো। দুই উপজেলার মানুষের যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজ ও কষ্ট লাগবের কথা চিন্তা করে সরকার ২০১১ সালের ১০ অক্টোবর সেতুটির কাজ শুরু করে এবং ২০১৭ সালের ২০ জানুয়ারি শ্রীপুর উপজেলার বানার নদীর উপর ২৭ কোটি ১৩ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত ৩১৫ মিটার দৈর্ঘ্যর এ্যাডঃ রহমত আলী সেতুর নির্মান কাজ শেষ হলে ১০ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সেতুটি উদ্বোধন করবেন।