শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে বার্সাকে হারিয়ে ফাইনালে অ্যাতলেটিকো


» Md. Neamul Hasan Neaz | | সর্বশেষ আপডেট: ১০ জানুয়ারি ২০২০ - ১১:০৩:৫৪ পূর্বাহ্ন

বুধবার রাতে স্প্যানিশ সুপার কাপের প্রথম সেমিফাইনালে জিতে ফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। যার ফলে সম্ভাবনা তৈরি হয়েছিল ফাইনাল ম্যাচে জমজমাট এল ক্লাসিকোর। কিন্তু তার বদলে এখন ফাইনালে দেখা যাবে মাদ্রিদ ডার্বি।

ফাইনালে এল ক্লাসিকোর জন্য শুধু দরকার ছিলো দ্বিতীয় সেমিফাইনালে বার্সেলোনার জয়। কিন্তু অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ হতে দেয়নি সেটি। শ্বাসরুদ্ধকর এক সেমিফাইনাল ম্যাচে বার্সেলোনাকে ৩-২ গোলে হারিয়ে ফাইনালে পৌঁছে গেছে ডিয়েগো সিমিওনের শিষ্যরাই।

যার ফলে আগামী ১২ জানুয়ারিতে হবে শিরোপা নির্ধারণী ফাইনাল ম্যাচে লড়বে মাদ্রিদের দুই ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ ও অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ। এল ক্লাসিকোর বদলে ফুটবলপ্রেমীরা এখন দেখতে পারবেন মাদ্রিদ ডার্বি ম্যাচ।

বৃহস্পতিবার রাতে সৌদি আরবের কিং আব্দুল্লাহ স্পোর্টস সিটি স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় সেমিফাইনাল খেলতে নেমেছিল বার্সেলোনা ও অ্যাতলেটিকো। ম্যাচের প্রথমার্ধ ছিলো গোলশূন্য ড্র। এর কৃতিত্ব পাবেন দুই দলের গোলরক্ষক নেতো এবং ইয়ান অবলাক।

তবে দ্বিতীয়ার্ধে ফিরে প্রথম মিনিটেই অ্যাতলেটিকোকে এগিয়ে দেন স্প্যানিশ মিডফিল্ডার কোকে। অ্যাঞ্জেল কোররেয়ার পাস ধরে নিচু শটে বল জালে জড়ান কোকে। লিড পায় অ্যাতলেটিকো।

লিড অবশ্য ৫ মিনিটের বেশি ধরে রাখতে পারেনি তারা। ম্যাচের ৫১ মিনিটের মাথায় দারুণ নৈপুণ্যে দলকে সমতায় ফেরান বার্সা অধিনায়ক লিওনেল মেসি। লুইস সুয়ারেজের বাড়ানো ছোট পাস ধরে ডি-বক্সে ঢুকেই ডান পায়ের শটে গোল করেন তিনি। এর খানিক পর দ্বিতীয় গোলও করেছিলেন মেসি। কিন্তু সেটি বাতিল হয়ে যায় ভিএআরে।

মেসির গোলে না হলেও, বার্সেলোনা লিড ঠিকই নেয় ৬২ মিনিটে। এবার স্কোরশিটে নাম তোলে অ্যান্তনিও গ্রিজম্যান। জর্দি আলবার ক্রসে মাপা হেড করেন সুয়ারেজ কিন্তু সেটি ফিরিয়ে দেন গোলরক্ষক অবলাক। ফাঁকায় দাঁড়ানো গ্রিজম্যান ফিরতি বলে হেড করে দলকে এগিয়ে দেন।

অ্যাতলেটিকো গোলরক্ষক আরও একবার হতাশ করেন সুয়ারেজকে। ৬৬ মিনিটের সময় সুয়ারেজের জোরালো শট রুখে দেন অবলাক। আর ৭৫ মিনিটের সময় ভিএআরের মাধ্যমে অফসাইডে বাতিল করা হয় জেরার্ড পিকের গোল।

বার্সেলোনার দুইটি গোল বাতিল হলেও, এগিয়ে ছিলো তারাই। কিন্তু শেষ ১০ মিনিটে সব হিসেব বদলে দেয় অ্যাতলেটিকো। ম্যাচে ৮১ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করেন আলভারো মোরাতা। এর মিনিট পাঁচেক পর জয়সূচক গোলটি করেন অ্যাঞ্জেল কোররেয়া।