শিক্ষার্থীদের নিয়ে জমকালো পিঠা উৎসব (সম্পূর্ণ ভিডিও)

প্যারাডাইজ স্কুল এন্ড কলেজ

» মুহাম্মদ গাজী তারেক রহমান | উত্তরা নিউজ, স্টাফ রিপোর্টার | সর্বশেষ আপডেট: ২৯ জানুয়ারি ২০২০ - ০৭:০৬:০৯ অপরাহ্ন

প্যারাডাইজ স্কুল এন্ড কলেজে অনুষ্ঠিত হলো জমকালো পিঠা উৎসব ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান-১৪২৬। বাংলাদেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিকে শিক্ষার্থীদের মাঝে তুলে ধরতেই প্রতি বছরের ন্যায় এবারও আয়োজনটি সম্পন্ন করেছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির কর্তৃপক্ষ। বুধবার (২৯ জানুয়ারি, ২০২০) বেলা ৩টায় উত্তরাস্থ ক্যাম্পাস অডিটোরিয়ামে আয়োজনটি সম্পন্ন হয়।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির এমন আয়োজনে ১৩টি পিঠার স্টলে বিভিন্ন স্বাদের পিঠা (ক্ষীরপুলি, চন্দ্রপুলি, পোয়া পিঠা, ভাপা পিঠা, ছাঁচ পিঠা, ছিটকা পিঠা, আস্কে পিঠা, চাঁদ পাকন পিঠা, সুন্দরী পাকন, সর ভাজা, পুলি পিঠা, পাতা পিঠা, পাটিসাপটা, মুঠি পিঠা, নকশি পিঠা ইত্যাদি) পরিবেশ করা হয়।

এ সময় অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা স্টলে স্টলে ক্রেতাদের উদ্দেশ্যে পিঠা পরিবেশন করেন। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কর্তৃক উক্ত পিঠা উৎসব ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে বিচারক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক উত্তরা নিউজ এর সম্পাদক ও প্রকাশক আলহাজ্ব তারেকউজ্জামান খান, ঢাকা বিজনেস ইনস্টিটিউটের প্রিন্সিপাল মো. তারিকুল ইসলাম, ডিভাইন স্ট্যান্ডার্ড স্কুলের প্রিন্সিপাল সুরাইয়া মোস্তাফিজ ও রাহেলা খাতুন মডেল স্কুলের প্রিন্সিপাল মো. ইকবাল হোসেন।

আয়োজনটিতে অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করতে পেরে বেশ আনন্দ প্রকাশ করেছে। ৪নং স্টলে পরিবেশনকারী সেলিনা হোসেন উত্তরা নিউজকে বলেন, ‘বিগত চার বছর ধরে আমি স্কুল কর্তৃপক্ষের এই পিঠা উৎসবে অংশগ্রহণ করে আসছি। ইনশাআল্লাহ ভবিষ্যতেও এ ধরনের সুন্দর আয়োজনের সাথে থাকব।’ প্যারাডাইজ স্কুলের শিক্ষার্থী সুমাইয়া আক্তার শারমিন বলেন, ‘স্কুলের এ ধরনের আয়োজন খুবই ভালো লাগে। আমিও পিঠার স্টল দিয়েছি। পিঠাগুলো নিজের হাতে বানিয়েছি।’ শারমিনের মতো প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষার্থী হাসনা, নাসিমা, সাদিয়া, হাফসাও পিঠা নিয়ে সাঁজিয়ে বসেছিল নিজ নিজ স্টল।

পিঠা উৎসব ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানটির বিষয়ে প্যারাডাইজ স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ রেহেনা পারভিন মুক্তা উত্তরা নিউজকে বলেন, ‘বিগত ৭ বছর ধরে আমরা স্কুল কর্তৃপক্ষ পিঠা উৎসবের আয়োজন করে আসছি। যারই ধারাবাহিকতায় আমরা এ বছরও আয়োজনটি সম্পন্ন করেছি। এখানে অভিভাবক ও শিক্ষর্থীরা স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ করেছে। এতে তাদের মধ্যে আমরা বাঙালি সংস্কৃতিকে জাগ্রত করার চেষ্টা করেছি। পাশাপাশি পিঠা পরিবেশনকারীদেরকে আমরা পুরস্কৃত করেছি। আলহামদুলিল্লাহ প্রতি বছরই আমরা বিভিন্ন জাতীয় দিবসের পাশাপাশি এই পিঠা উৎসব ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে থাকি।’

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষিকা জেরিন পারভেজের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানটিতে উপস্থিত ছিলেন সহকারি শিক্ষক বিএম ইমরান আমিন, আমির হোসেন, আব্দুস সাত্তার, রেজাউল ইসলামসহ প্রতিষ্ঠানটিতে পড়ুয়া সকল ছাত্র-ছাত্রী ও অভিভাবকবৃন্দ।