লালমনিরহাটে অগ্রনী ব্যাংক কর্মকতার বিরুদ্ধে ৩ শিশু ধর্ষন চেষ্টা মামলায় আদালতে চার্জশীট দাখিল


» কামরুল হাসান রনি | ডেস্ক ইনচার্জ | | সর্বশেষ আপডেট: ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০ - ০৯:৫৯:০১ অপরাহ্ন

লালমনিরহাট সংবাদদাতাঃ লালমনিরহাটের ব্যাংকার মোবারক। নেশায় ব্যাংকার হলেও পেশায় শিশু নিপিড়নকারী। চাকুরী করেন অগ্রনী ব্যাংক মিশন মোড় শাখায়। ৩ শিশু ধর্ষন চেস্টা মামলার আসামী। আদালতে তার বিরুদ্ধে চার্জশীট দাখিল করেছে পুলিশ।
সেই তিন শিশু আজও বিচার চায় লম্পট মোবারক হোসেন এর। টাকার কুমির মোবারক সম্পদের অঢেল মালিক। ঘটনা ধামাচাপায় ছড়াচ্ছে একের পর এক টাকা।
মামলার বিবরন ও চার্জশীটে জানাগেছে, অগ্রনী ব্যাংক লালমনিরহাট শহরের মিশন মোড় শাখায় সহকারী ব্যাংক ম্যানেজারের চাকুরী করেন মোবারক হোসেন। তার গ্রামের বাড়ী জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার তুষভান্ডার দক্ষিন ঘনেশ্যাম (টেপাটারী)।
এলাকায় তার রয়েছে বাগান বাড়ী। ওই বাগান বাড়িতে প্রতি শুক্রবার এলাকার শিশুদের করতো যৌন হয়রানী। শিশুদের চকলেট খাওয়ার লোভ দেখিয়ে করতো তার লম্পটগীরি। টেপাটারী গ্রামে গত ২২ নভেম্বর মিজানুর রহমান এর ৬ বছরের কন্যা, ২৯ নভেম্বর আশরাফুল আলম এর ৭ বছরের কন্যা ও বাবুল মিয়ার ৭ বছরের কন্যাকে চকলেট খাওয়ার প্রলোভেনে নিয়ে যায় বাগান বাড়িতে। সেখানে বিভিন্ন সময় ধর্ষনের চেষ্টায় শিশুদের নানান ভাবে নিপিড়ন করে। শিশুরা তাদের অভিবাবকদের বিষয়টি জানালে ওই লম্পট মোবারক হোসেন এর বিরুদ্ধে কালীগঞ্জ থানায় গত ৩ ডিসেম্বর মামলা দায়ের করেন ধর্ষনের চেষ্টার শিকার শিশুর পিতা মিজানুর রহমান।
মামলাটি অগ্রনী ব্যাংক এর কর্মকতা মোবারক হোসেন এর বিরুদ্ধে কালীগঞ্জ থানায়  ৯(৪) (খ) ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন সংশোধনী ২০০৩ তৎসহ ৫০৬ পেনাল কোড ১৮৬০ ধর্ষনের চেস্টা ও ভয়ভীতি প্রদর্শনের অপরাধ মামলা দায়ের করে। মামলা নং ০৭ তারিখ ৩ ডিসেম্বর। মামলা দায়েরের পর পলাতক থাকে মোবারক হোসেন। পরে অগ্রনী ব্যাংক মিশন মোড় শাখার সহকারী কর্মকর্তা মোবারক হোসেন অঢেল টাকার মালিক।
ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য বিভিন্ন স্থানে মোটান টাকা ছাড়েন। মামলার বাড়ী দরিদ্র পরিবারের হওয়ায় মোবারক বাদীকে মামলা প্রত্যাহারের জন্য চেস্টা ও ভয় ভীতি প্রর্দশন করে। অবশেষে মিডিয়ার হস্তক্ষেপে পুলিশ ঘটনাটি সঠিক তদন্ত করে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কালীগঞ্জ থানার এসআই সাইদুর রহমান ঘটনাটি সঠিক তদন্ত করে ঘটনার সত্যতা পেয়ে আদালতে চার্জশীট দাখিল করে ধর্ষন চেস্টাকারী অগ্রনী ব্যাংক মিশন মোড় শাখার সহকারী ব্যাংক কর্মকর্তা মোবারক হোসেন এর বিরুদ্ধে।
নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধনী/০৩) এর ৯ (৪) (খ) তৎসহ পেনালকোড আইনের ৫০৬ ধারায় অপরাধ প্রতিয়ম্যান হয় বলে আদালতে চার্জশীট দাখিল করে তদন্তকারী কর্মকতা।
আদালতে চার্জশীর্ট দালিলের পর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের আদালতের বিচারক আগামী ৩১ মার্চ দিন ধার্য করেছে। ওই ধায্য দিনে আসামী মোবারক আদালতে হাজির না হলে আগামীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী করবে বলে জানা যায় আদালত সূত্রে।
লালমনিরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন আদালতের পিপি  এ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম রাজু জানান, যে হতু মামলাটির পুলিশ চার্জশীট দাখিল করেছে আদালতে বাদী ন্যায্য বিচার পাবে বলে আশা করা হচ্ছে।
লালমনিরহাট কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ সাজ্জাত হোসেন জানান, মামলাটি তদন্তে সঠিক পাওয়ায় আইন অনুযায়ী আদালতে আসামী মোবারক হোসেন এর বিরুদ্ধে চার্জশীর্ট দাখিল করা হয়েছে আশা করছি আসামী সঠিক সাজা হবে। অভিযক্ত ব্যাংক কর্মকতা মোবারক হোসেন জানান, আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ সঠিক না আমি আদালতে ন্যায্য বিচার পাবো।
ওদিকে বিচার চেয়ে অগ্রনী ব্যাংক প্রধান কার্যালয়ে অগ্রনী ব্যাংক লালমনিরহাট মিশন মোড় শাখার সহকারী ম্যানেজার মোবারক হোসেন এর বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে ধর্ষনের চেস্টার শিকার শিশুর পরিবার। অভিযোগকারী ও বাদী মিজানুর রহমান জানান, আমার শিশু মেয়ে কে যে ধর্ষনের চেস্টা করেছে তার বিচার চাই।