পারভেজ হোসাইন | রামগঞ্জ (লক্ষীপুর) প্রতিনিধি পারভেজ হোসাইন | রামগঞ্জ (লক্ষীপুর) প্রতিনিধি


লক্ষ্মীপুরে গৃহবধূকে অমানবিক গণধর্ষণের অভিযোগ! ধর্ষক গ্রেপ্তার






লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার চর আলী হাসান গ্রামে এক গৃহবধূকে গণধর্ষণের অভিযোগে তিনজনকে আটক করে পুলিশ সোপর্দ করেছে স্থানীয়রা। বুধবার (২৪ জুলাই) দুপুরে স্থানীয় ইউপি সদস্যের সহায়তায় আটককৃত দেওয়া হয়েছে। এর আগে ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ ও তার পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে মঙ্গলবার রাতে এলাকাবাসী ওই তিনজনকে আটক করে।

আটককৃতরা হলো, রফিকুল ইসলাম ব্যাপারীর ছেলে বাহার, দেলোয়ার হোসেনের ছেলে আল আমিন ও আবু তাহেরের ছেলে সাকিল। এরা সকলে সদর উপজেলার চর রমনী মোহন ইউনিয়নের চর আলী হাসান গ্রামের বাসিন্দা।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, গেল ২২ জুন গৃহবধূ তার বাপের বাড়ি সদর উপজেলার চর আলী হাসান গ্রাম থেকে স্বামীর বাড়ি পাশ্ববর্তী শাকচর ইউনিয়নের হাজিরহাট এলাকায় যাচ্ছিলেন। এ সময় মজুচৌধুরীরহাট সড়কের সাইফিয়া দরবার শরীফ এলাকায় পৌঁছালে ওই গৃহবধূকে একা পেয়ে বাহার, আল আমিন, সাকিল ও বাদশা জোরপূর্বক পাশের নির্জনস্থানে নিয়ে যায়।

সেখানে তাকে গণধর্ষণের পর রাত ১০ টার দিকে অভিযুক্তরা বিষয়টি কাউকে না জানানোর শর্তে তাকে ছেড়ে দেয়। এতেও ক্ষান্ত হয়নি ধর্ষকরা। গৃহবধূর মোবাইলে কল দিয়ে পুনরায় দেখা করার জন্য চাপ সৃষ্টি করে অভিযুক্ত বাদশা। অন্যথায় ধর্ষণের বিষয়টি প্রকাশের ভয় দেখায়। এক পর্যায়ে বিষয়টি গৃহবধূর স্বামীর বাড়ির লোকজন জানতে পেরে স্থানীয় চররমনী মোহন ইউপি সদস্য আবদুর রহমান স্বপনকে অবহিত করেন।

ইউপি সদস্য আবদুর রহমান স্বপন জানান, বিষয়টি জানার পর গ্রাম পুলিশ ও স্থানীয়দের সহায়তায় অভিযুক্ত চারজনের মধ্যে তিনজন ধর্ষককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিজুর রহমান মিয়া বলেন, ‘গৃহবধুকে গণধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।