লকডাউনে অনলাইন সল্যুশন


» কামরুল হাসান রনি | ডেস্ক ইনচার্জ | | সর্বশেষ আপডেট: ০৯ মে ২০২০ - ১২:০৯:০০ অপরাহ্ন

করোনাভাইরাস বাংলাদেশের অনেক সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে এটি বললেও কম বলা হবে। আসলে এই ভাইরাসটি বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতোই বাংলাদেশিদের জীবনের সর্বক্ষেত্রে নেতিবাচক প্রভাব বিস্তার করেছে।

নতুন সংক্রমণের উর্ধ্বমুখী সংখ্যাকে কমিয়ে আনার জন্য সরকার সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা নিশ্চিত করতে দেশব্যাপী লকডাউন ঘোষণা করেছে। এর ফলে সবাই বাসায় অবস্থান করছে যার ফলে অনেক ব্যবসাই ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক দ্বারা পরিচালিত একটি সমীক্ষায় বলা হয়েছে, লকডাউনের কারণে আমাদের প্রতিদিন ৩০ বিলিয়ন টাকা পরিমাণ ক্ষতি হচ্ছে।

পরিস্থিতি এমন যে নতুন কোনো প্রতিষেধক বা ভ্যাকসিন না পাওয়া পর্যন্ত ঘরে অবস্থান করা ছাড়া কোনো উপায় নেই। তবে এই লকডাউন চলাকালীন মানুষ তাদের নিত্যপ্রয়োজনীয় কাজ কিংবা অফিসের কাজ করতে বিভিন্ন অনলাইন সার্ভিসের উপর অনেকাংশে নির্ভর করছে।

উদাহরণস্বরূপ, এই মুহুর্তে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রয়োজন হলো কাঁচা বাজার ও মুদি সামগ্রী। তবে কোনো ব্যস্ত সুপারস্টোর বা বাজারে গেলে অতিরিক্ত জনসমাগম তৈরি হতে পারে। তাই অনেক স্টোরই অনলাইন সার্ভিস চালু করেছে যেখান থেকে গ্রাহকরা বাড়িতে বসেই অনলাইনে তাদের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কেনাকাটা করতে পারেন এবং সেগুলো হোম ডেলিভারি পেতে পারেন। একইভাবে বেশ কয়েকটি রেস্টুরেন্টও দিনের বেলা খোলা আছে যদিও তারা শুধু অনলাইনে অর্ডার নিচ্ছে।

এছাড়াও অন্যান্য বেশ কয়েকটি অনলাইন পরিসেবা আছে যেগুলো এই মহামারির সময়ে মানুষের খুব কাজে লাগছে। লকডাউনের কারণে বাসা স্থানান্তর কিংবা নতুন বাসা খোঁজা প্রায় অসম্ভব। কারণ নিজের পছন্দসই বাসা খুঁজতে হলে সরাসরি গিয়ে দেখতে হয়।

প্রপার্টি সল্যুশন প্রোভাইডার বিপ্রপার্টি এই কাজটিকে অত্যন্ত সহজ ও ঝামেলামুক্ত করে তুলেছে। বিপ্রপার্টির সাইটে ২৩০,০০০ এরও বেশি প্রপার্টি রয়েছে এবং যে কেউ এই তালিকাভুক্ত প্রপার্টির মধ্যে থেকে তাদের পছন্দসই অ্যাপার্টমেন্ট বা ফ্ল্যাট খুঁজে নিতে পারে। ফলে নতুন বাড়ি খুঁজতে কাউকে এখন লকডাউনের নিয়ম ভেঙে বাইরে বের হতে হবে না। এছাড়াও আছে ৩৬০ ডিগ্রি ভার্চুয়াল ট্যুর ফিচার যা গ্রাহককে প্রপার্টি খুঁজে দেয়ার পাশাপাশি বাড়ির ভেতরের অংশও দেখায়। এই ফিচারটি ঢাকার ১০০০টিরও বেশি তালিকাভুক্ত প্রপার্টির সাথে যুক্ত এবং প্রতিদিনই এই তালিকায় নতুন নতুন প্রপার্টি যুক্ত হচ্ছে।

লকডাউন হওয়ার ফলে এখন মানুষের হাতে অফুরন্ত সময় যা তারা বিভিন্নভাবে কাজে লাগাচ্ছে। যারা বাসা পরিবর্তন করতে চাচ্ছেন কিংবা নতুন অ্যাপার্টমেন্ট কেনার কথা ভাবছেন তারা বিপ্রপার্টির মাধ্যমে তালিকাভুক্ত প্রপার্টিগুলো থেকে যাচাই-বাছাই করছেন। এই লকডাউন চলাকালীন সময় গত এক মাসে বিপ্রপার্টিতে উল্লেখযোগ্য হারে প্রপার্টি সম্পর্কিত খোঁজ করতে অনেকেই যোগাযোগ করেছেন।

এ থেকেই বোঝা যায়, যদিও এখন স্বাভাবিক জীবনযাত্রা থেমে আছে তবুও মানুষ তাদের জীবনযাত্রাকে স্বাভাবিক রাখার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এভাবে তারা লকডাউনের নিয়ম না ভেঙে কিছু প্রয়োজনীয় কাজ সম্পন্ন করছেন।