যেসব ফলের জুস হতে পারে ক্ষতিকর


» উত্তরা নিউজ | অনলাইন রিপোর্ট | সর্বশেষ আপডেট: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ - ০৪:৩৪:২৯ অপরাহ্ন

তাজা ফলের জুস স্বাস্থ্যের জন্য সব সময় ভালো, এ কথা ধরেই নেই আমরা। কমলা সহ কিছু ফলের জুস সত্যিকার অর্থেই বেশ উপকারী। তবে কিছু ফল ও সবজির জুস আছে, যা খাওয়ার আগে আপনাকে ভাবতে হবে কয়েকবার। কারণ সেগুলো উপকারের চেয়ে অপকার করতে পারে শরীরের। কোন কোন ফল ও সবজির জুস পান করা ঠিক না তা জানি চলুন।

আনারস: আনারসে প্রচুর ভিটামিন ও মিনারেল আছে। তবে এমনিতে আনারস কেটে খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ভালো হলেও এই ফল থেকে জুস বানিয়ে খাওয়া স্বাস্থ্যকর না। কারণ জুস করা হলে আনারসে থাকা বেশিরভাগ পুষ্টি বের হয়ে যায়। আর চিনির পরিমাণ বেশি থাকে বলে তা আপনার ব্লাড সুগার ও ইনসুলিন লেভেল বাড়িয়ে দিতে পারে।

নাশপাতি: নাশপাতি দিয়ে সুস্বাদু জুস তৈরি করা যায়। তবে এই জুস সবার জন্য স্বাস্থ্যকর নাও হতে পারে। বিশেষ করে যাদের ফ্রুকটোজ হজম করতে সমস্যা হয়, তাদের জন্য। নাশপাতিতে সর্বিটল নামের এক ধরনের চিনি থাকে, যা হজম হয় না, এটি হজমের সমস্যা যেমন- গ্যাস, বাওয়েল মুভমেন্টে জটিলতা ও অ্যাবডোমিনাল পেইন তৈরি করে।

সবুজ শাকসবজি: পালং শাকের মতো শাকসবজিতে পুষ্টি থাকে অনেক। তাই এই শাকের জুস স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। তবে এতে থাকা অক্সালেটের পরিমাণ বেশি হলে তা উল্টো শরীরের ক্ষতি করতে পারে। অক্সালেট বেশি পরিমাণে খেলে তা কিডনির পাথর তৈরি করতে পারে।

লেবু ও কমলা লেবুর খোসা: অনেকেই লেবু ও কমলালেবুর খোসা সহ জুস তৈরি করেন। এটা ঠিক না। কারণ এসব খোসা থেকে জুস হজমের জন্য ক্ষতিকর হতে পারে।

ব্রকোলি: ব্রকোলিতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি, কে ওয়ান, পটাশিয়াম ও ম্যাঙ্গানিজ আছে। তাই অনেকেই ব্রকোলির জুস করে খেতে পছন্দ করেন। তবে এই সবজি কিন্তু হজম করা কষ্টকর। এর জুস পেট ফাঁপা, গ্যাস তৈরি করতে পারে।

আপেল: শুনতে অদ্ভুত মনে হলেও আপেলের জুস কিন্তু ক্ষতিকর হতে পারে শরীরের জন্য। এমনিতে আপেল জুস স্বাস্থ্যকর। অনেকেই তাই আপেল জুস খেতে পছন্দ করেন। কিন্তু আপেলের ভেতর থাকা বীজ সহ জুস তৈরি করা হলে সেটি পেটে বিষক্রিয়া তৈরি করতে পারে। কারণ আপেলের বীজে অ্যামিগডালিন নামের একটি কেমিক্যাল কম্পাউন্ড থাকে যা পরিপাক তন্ত্রে গিয়ে বিষক্রিয়া তৈরি করে।

উত্তরা নিউজ/এস,এম,জেড