বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১, ১০:১২ পূর্বাহ্ন

যশোরে করোনা আক্রান্ত নারী জন্ম দিলেন কন্যা সন্তানের

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১৪ মে, ২০২০
  • ০ Time View

যশোর জেনেসিস হাসপাতালে কন্যা সন্তানের জন্ম দিলেন করোনা আক্রান্ত এক অন্তঃসত্ত্বা নারী (২৮)। তিনি একবার করোনাভাইরাস মুক্ত হওয়ার পর ফের করোনায় আক্রান্ত হন।

বুধবার (১৩ মে) সিজারিয়ান অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে তিনি এই নবজাতকের জন্ম দেন। অস্ত্রোপচার করেন যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের গাইনী বিভাগের সার্জন ডা. নিলুফার ইসলাম এমিলি। এসময় স্বাস্থ্য বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

মা ও নবজাতক সুস্থ আছেন। করোনা আক্রান্ত মায়ের কাছ থেকে শিশুকে আলাদা শয্যায় রাখা হয়েছে। অস্ত্রোপচার টিমে থাকা দুই চিকিৎসক ও একজন সেবিকাকে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে।

যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার (আরএমও) ডা. আরিফ আহমেদ জানান, গত ৯ মে  চৌগাছা উপজেলার বানরহুদা গ্রামের করোনা আক্রান্ত অন্তঃসত্ত্বা এই নারীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

গাইনী সার্জন ডা. নিলুফার ইসলাম এমিলি জানিয়েছেন, ঢাকার বাইরে যশোরে করোনা আক্রান্ত রোগীর প্রথম অস্ত্রোপচার করা হলো।

ডা. এমিলি বলেন, ‘প্রথমে নিজের ও পরিবারের কথা চিন্তা করে মানসিকভাবে দুর্বল হয়েছিলাম। পরে ভয়কে জয় করেই রোগীর অস্ত্রোপচারের জন্য মনকে শক্ত করি।’

যশোরের সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন জানান, সরকারি খরচে করোনায় আক্রান্ত এ নারীর সিজারিয়ান অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২০ এপ্রিল এই গৃহবধূ চৌগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন। তার উপসর্গ সন্দেহজনক হলে ২১ এপ্রিল নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। ২২ এপ্রিল তিনি হাসপাতাল থেকে পালিয়ে বাড়িতে চলে যান। ২৩ এপ্রিল তার করোনা শনাক্ত হয়। এরপর তিনি  হোম আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন ছিলেন। গত ৫ ও ৯ মে দুইবারের পরীক্ষার ফলাফলেই দেখা যায় তার করোনা নেগেটিভ। ৯ মে তাকে যশোর সিভিল সার্জন অফিসে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি করোনামুক্ত ঘোষণা করে মেডিক্যাল সনদপত্র দেয়া হয়। এরপর সিজারিয়ান অস্ত্রোপচারের জন্য তাকে ভর্তি করা হয় যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে। কিন্তু অস্ত্রোপচারের আগেই গত ১২ মে ফের তার করোনা পজেটিভ ফলাফল আসে।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© All rights reserved © uttaranews24
themesba-lates1749691102