মুহাম্মদ গাজী তারেক রহমান মুহাম্মদ গাজী তারেক রহমান
উত্তরা নিউজ, স্টাফ রিপোর্টার


মধ্যপ্রাচ্যের ভূখন্ডগুলোতে একের পর এক ইসরাইলের আগ্রাসন






আন্তর্জাতিক বিষয়ক প্রতিবেদক: মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে একমাত্র অশান্তির কারণ কট্টর ইহুদিবাদী রাষ্ট্র ইসরায়েল। মধ্যপ্রাচ্যের বুকে রাষ্ট্রটি প্রতিষ্ঠার পর থেকেই নানাভাবে আশপাশের রাষ্ট্রগুলোর জোর-জবর দখলসহ নানারকম হত্যা ও খুনে মত্ত রয়েছে দেশটির সরকার ও রাষ্ট্রীয় বাহিনীগুলো। ইসরায়েলি বাহিনীর অত্যাচারের চাকায় সবচেয়ে বেশিবার পিষ্ট হয়েছেন ফিলিস্তিনিবাসীরা। গেল সপ্তাহের শেষ দিন শুক্রবারেও দখলদার ইসরাইলি বাহিনীর গুলিতে শহীদ হয়েছে দুই ফিলিস্তিনি তরুন। গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ খবর জানিয়ে বলেছে, ৬, সেপ্টেম্বর, শুক্রবার স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের দাবিতে ফিলিস্তিনিদের ৭৩তম বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। বিক্ষোভের সময় ইহুদিবাদী সেনারা সীমান্তের ওপার থেকে ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীদের ওপর নির্বিচারে গুলি চালালে দুই ফিলিস্তিনি যুবক নিহত ও অপর অন্তত ৭০ জন আহত হন। উল্লেখ্য যে, ২০১৮ সালের ৩০ মার্চ মাস থেকে অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার অধিবাসীরা ইসরাইল বিরোধী বিক্ষোভ করে আসছেন।

তারা ইহুদিবাদীদের দখলে থাকা নিজ মাতৃভ‚মিতে ফিরে আসার পাশাপাশি গাজা উপত্যকার ওপর থেকে ১৩ বছরের অবরোধ প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছেন। গত প্রায় দেড় বছর ধরে চলা এই বিক্ষোভে ইসরাইলি সেনাদের হামলায় এ পর্যন্ত শত শত ফিলিস্তিনি নিহত এবং ৩১ হাজারেরও বেশি লোক আহত হন। আহতদের মধ্যে ৫০০ জনেরও বেশি ফিলিস্তিনির কোনো না কোনো অঙ্গহানি হয়েছে। ফিলিস্তিনিদের উপর যখন অবৈধ রাষ্ট্র ইসরায়েল একের পর এক হত্যাযজ্ঞ চালিয়ে যাচ্ছে সেই সাথে থেমে নেই অন্যান্য সীমান্তবর্তী রাষ্ট্রগুলোর উপর নিজেদের আগ্রাসন। চলতি সপ্তাহে এই অবৈধ রাষ্ট্রটির সীমান্তবর্তী মুসলিম প্রধান দেশ লেবাননের প্রেসিডেন্ট মিশেল আউন দক্ষিণ লেবাননে স¤প্রতি ইহুদিবাদী ইসরাইলের ড্রোন হামলার প্রতিবাদে বলেছেন, ইহুদিবাদী ইসরাইল যদি তার দেশের বিরুদ্ধে কোনো রকমের আগ্রাসন চালায় তাহলে লেবানন তার বৈধ অধিকার অনুসারে পাল্টা জবাব দেবে। তিনি সতর্ক করে বলেন, এধরনের আগ্রাসনের পরিণতির জন্য ইসরাইলকে দায় বহন করতে হবে। লেবানন বিষয়ক জাতিসংঘের বিশেষ সমন্বয়কারী জ্যান কুবিসের সঙ্গে লেবাননের রাজধানী বৈরুতের বাবদা প্যালেসে গেল সপ্তাহের শেষ দিন (শুক্রবার) এক বৈঠকে এসব কথা বলেন।

এদিকে, অপর মুসলিম প্রধান দেশ ইরাকের আকাশেও ইসরাইল তাদের ড্রোন উড়িয়েছে বলে জানিয়েছেন ইরাকের জনপ্রিয় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন হাশ্দ আশ-শাবির। জানা যায়, হাশ্দ আশ-শাবির অবস্থানে স¤প্রতি যেসব ড্রোন হামলা হয়েছে তার জন্য ইহুদিবাদী ইসরাইল ইরাকের ভেতরকার কয়েকটি মার্কিন ঘাঁটি ব্যবহার করেছে। সংগঠনটির কমান্ডার ইরানের আরবি ভাষার টেলিভিশন চ্যানেল আল-আলম নিউজ নেটওয়ার্ক একথা জানিয়ে বলেছেন, ভবিষ্যতে এ ধরনের হামলা হলে তার পাল্টা জবাব দেয়া হবে। ইরাকের প্রতিরোধকামী সংগঠন সারাইয়া আল-খোরাসানীর কমান্ডার আলী আল-ইয়াসেরি আরও বলেন, ইরাকের উপর ইসরাইলের সমস্ত হামলা ছিল পরোক্ষ এবং এজন্য তারা ইরাকের ভেতরের মার্কিন ঘাঁটি ব্যবহার করে ইসরাইল তাদের ড্রোন ইরাকের আকাশে উড়িয়েছে।

এমন পরিস্থিতিতে, মুসলিম দেশগুলোর উপর কট্টর ইহুদিবাদী রাষ্ট্র ইসরায়েল সেই সাথে মার্কিনীদের আতাঁত নির্মূল করার জন্য অন্যান্য শক্তিশালী মুসলিম দেশগুলোর শীঘ্রই এগিয়ে আসা উচিত বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।