ভালুকায় আ’লীগের আগামীর ভরসা হাজী রফিকুল ইসলাম

আসন্ন উপজেলা আ’লীগের কাউন্সিলে সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী

» আবুল বাশার শেখ | ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি | | সর্বশেষ আপডেট: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ - ০৩:০২:১৪ অপরাহ্ন

সৎ, নির্লোভ বহুমাত্রিক কৃতিত্বের অধিকারী একজন আলোকিত মানুষ, যিনি সব সময় সমাজের অসহায় মানুষের জন্য নীরবে-নিভৃতে কাজ করে চলেছেন। সমাজকে আলোকিত করার এক মহাকর্মযজ্ঞে তিনি ব্যস্ত রয়েছেন। সব শ্রেণির মানুষকে আপন করে নেয়ার গুণ রয়েছে তার। অসহায়ের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন খোলা মনে। এলাকার আপমর জনগণ দানশীলতায় অনন্য এ মানুষটিকে দানবীর হিসেবে শ্রদ্ধা ও ভালোবাসেন। এতোসব গুণের অধিকারী সাদা মনের মানুষটির নাম হাজী রফিকুল ইসলাম রফিক। ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক হাজী রফিকুল ইসলাম রফিকের জীবনের একমাত্র ব্রত দেশ, দল, সমাজ ও মানুষের জন্য কাজ করা। তার চারিত্রিক দৃঢ়তা ইস্পাতসম। তিনি সব সময় অত্যন্ত বিনয়ী অথচ নৈতিকতায় দৃঢ়। নীতির প্রশ্নে তিনি আপোষহীন। বহুগুণের অধিকারী এ মানুষটির সঙ্গে কিছুটা সময় কাটানো ও আলাপচারিতায় জানা গেল এলাকা ও দলের উন্নয়নে তার নানা পরিকল্পনার কথা।

ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার শিল্পাঞ্চলখ্যাত ১০নং হবিরবাড়ি ইউনিয়নের জমিরদিয়া গ্রামের আওয়ামী পরিবারের কৃতি সন্তান সমাজ সেবক, শিক্ষানুরাগি, দানবীর হিসাবে পরিচত একজন সফল ব্যবসায়ী ও ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক হাজী রফিকুল ইসলাম রফিক আ’লীগ থেকে দলীয় নেতাকর্মীদের দাবীর প্রেক্ষিতে ভালুকা উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আসন্ন কাউন্সিলে প্রতিদ্বন্ধিতা করতে উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে নেতাকর্মীদের সাথে গণসংযোগ করে যাচ্ছেন।

হাজী রফিকুল ইসলাম রফিক জামিরদিয়া মাস্টারবাড়ি এলাকার সম্ভ্রান্ত আব্দুল গনি মাস্টার পরিবারে ১৯৭১ সালে জন্ম গ্রহন করেন। তার পিতা নাম মরহুম হাজী মতিউর রহমান, মাতা আলহাজ্ব মোছাঃ আমেনা খাতুন। ৩ ভাই ও ৪বোনের মাঝে তিনি সবার ছোট। বড় ভাই আলহাজ্ব আব্দুর রশিদ আসপাডা পরিবেশ উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সফল ব্যবসায়ী। মেঝো ভাই আব্দুর রহিম তিনিও সফল ব্যবসায়ী ও সাবেক হবিরবাড়ী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক। হাজী রফিকুল ইসলাম রফিক বিকাশের ৬ উপজেলার ড্রিস্টিভিউটর এবং স্কয়ার গ্রুপের অন্যতম ব্যবসায়ী। সারা দেশে শিক্ষানুরাগি হিসাবে তার বেশ সুনাম রয়েছে। তিনি আব্দুল গনি একাডেমির প্রতিষ্ঠাতা ও আব্দুল গনি বৃত্তি ফাউন্ডেশনের দাতা। ডাকাতিয়া শহীদ স্মৃতি বৃত্তি ফাউন্ডেশনের আজীবন পৃষ্টপোষক।

এ ছাড়াও আজীবন দাতা হিসাবে রয়েছেন, হবিরবাড়ি ইউনিয়ন সোনারবাংলা উচ্চ বিদ্যালয়, পাড়াগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়, বাটাজোর সোনার বাংলা মহা-বিদ্যালয়, মলি¬কবাড়ি শহীদ নাজিম উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়, আজীবন দাতা সদস্য ঝালপাজা উচ্চ বিদ্যালয়, প্রতিষ্ঠাতা দাতা সদস্য আব্দুল গনি উচ্চ বিদ্যালয়, সভাপতি হবিরবাড়ী এতিমখানা মাদ্রাসা এবং পার্শ্ববর্তী শ্রীপুর উপজেলার আব্দুল আউয়াল ডিগি কলেজের বিদ্যুতসাহী সদস্য।

ছাত্র জীবনে নাসিরাবাদ কলেজ ছাত্রলীগের সক্রিয় সদস্য হিসেবে যাত্রা শুরু করে ২০০৩ সালে হবিরবাড়ী ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের সদস্য, ২০০৬ সালে হবিরবাড়ী ইউনিয়ন ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির অর্থ বিষয়ক সম্পাদক, ২০০৯ সালে আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের ময়মনসিংহ জেলা শাখার  আহ্বায়ক এবং ২০১৮ সালে ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক হিসাবে আওয়ামীলীগের সমস্ত কর্মকান্ডে ওতপ্রোতভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।

হবিরবাড়ি ইউনিয়ন সহ উপজেলার বিভিন্ন এলাকার মসজিদ, মাদ্রাসা, এমিখানা, স্কুল, কলেজ সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সামাজিক প্রতিষ্ঠানের ভবন নির্মাণসহ উন্নয়ন মূলক কাজ করে বেশ অবদান রেখে চলেছেন। হবিরবাড়ি ইউনিয়ন সহ আশপাশের উপজেলার বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানে সব ধরণের পৃষ্ঠপোষকতা দিয়ে থাকেন। ফলে, যুব সমাজসহ দল মত নির্বিশেষে সবার মুখে তার গুণগান শোনা যায়। সামাজিক ক্ষেত্রে অবদান রাখায় বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে শতাধিক সম্মাননা ও সংবর্ধনা পেয়েছেন।

বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভানেত্রী, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার লক্ষে নিরলস ভাবে উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে কাজ করে যাচ্ছেন।
হাজী রফিকুল ইসলাম রফিক বলেন, আমি ভালুকা উপজেলার সকল মানুষের সুখে দুঃখে তাদের পাশে ছিলাম, আছি, আগামী দিনেও থাকবো এবং দল থেকে আমাকে ভালুকা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসাবে মনোনিত করলে আমি দলকে সুশৃঙ্খলভাবে সাজিয়ে মডেল হিসেবে ভালুকা উপজেলা আওয়ামীলীগকে জননেত্রী দেশরত্ন শেষ হাসিনার কাছে উপস্থাপন করবো। সরকারের উন্নয়নের দূরদর্শী চিন্তাকে বাস্তবে রূপ দিতে, ভিশন ২০৪১ কে সফল করতে ও ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে উপজেলার সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার জন্য দলীয় নেতাকর্মী ও উপজেলার সর্বস্তরের জনগণের দোয়া ও সমর্থন কামনা করছি।