ব্যর্থতার খাতাতে  নাম তুলেছেন-সৌম্য সরকার

উত্তরা নিউজ ডেস্কঃ লিগ পর্ব শেষে আজ শুরু হয়েছে ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের (ডিপিএল) সুপার লিগের খেলা। যেখানে শিরোপার দৌড়ে এগিয়ে যেতে মিরপুরে আজ প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাবের মুখোমুখি হয় আবাহনী লিমিটেড। ম্যাচে ওয়াসিম জাফর ও নাজমুল হোসেন শান্তর অর্ধশতকের সাথে শেষ দিকে মোহাম্মদ মিঠুনের ৪১ রানের কল্যাণে দোলেশ্বরকে ২১৫ রানের লক্ষ্য ছুড়ে দিয়েছে আকাশী-নীলরা।

এদিন শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট ক্রিকেট স্টেডিয়াকে টসে হেরে নিজেদের ইনিংসের শুরু করতে আসেন আবাহনীর দুই ব্যাটসম্যান ইনফর্ম জহুরুল ইসলাম ও অফফর্মের বৃত্তে ঘুরপাক খেতে থাকা সৌম্য সরকার। তবে আজ একেবারেই সুবিধা করতে পারেননি জহুরুল, ইনিংসের দ্বিতীয় ও ফরহার রেজার করা প্রথম ওভারেই ফিরেছেন ১ রান করে। জহুরুলের আউটের পরের ওভারে নতুন ব্যাটসম্যান মিরাজও একই পথের সারথী হয়েছেন ৫ রানের মাথায়।

খানিক বাদে ব্যর্থতার খাতাতে  নাম তুলেছেন আরেক ওপেনার সৌম্য সরকারও, ১৩ বল থেকে দুই রান করে হয়েছেন আবু জায়েদ রাহির দ্বিতীয় শিকার। ডিপিএলটা একদমই ভালো যাচ্ছে না সৌম্য সরকারের। আজকের আগে আবাহনীর হয়ে ডিপিএলের ৮ ম্যাচে সৌম্যর রান ছিল যথাক্রমে- ৩৩, ৩৬, ৪৩, ২৯, ১২, ১০, ১৪, ১।

এরপর বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের হাল ধরেন দলের ভারতীয় রিক্রুট ওয়াসিম জাফর ও নাজমুল হোসেন শান্ত, চতুর্থ উইকেট জুটিতে দেখেশুনে খেলে দুজন যোগ করেন ১৪৬ রান। নিজের অর্ধশতক পূরণ করে জাফর ৭১ রানে আরাফাত সানির বলে আউট হয়ে গেলে ভাঙে এই জুটি।

ফাইল ছবি

সেখান থেকে নতুন ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ মিঠুনের সাথে ৩২ রান যোগ করার পর শান্তও ৭০ রান করে ফিরে গেলে দোলেশ্বরের বোলার সাইফ হাসান ওই ওভারেই শূন্য হাতে ফেরান আবাহনীর অধিনায়ক মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতকে। ফলে ১৯০ রান তুলতেই ৬ উইকেট হারিয়ে বসে আকাশী-নীলরা।

এরপর শেষ দিকে মিঠুনের ৪১ রানের সাথে মাশরাফি বিন মর্তুজার ২১ বলে ২৪ রানের কল্যাণে অল আউট হওয়ার আগে ২৫১ রানের পুঁজি পায় আবাহনী। দোলেশ্বরের হয়ে আবু জায়েদ ৩ ও সাইফ হাসান এবং অধিনায়ক ফরহাদ রেজা নেন দুইটি করে উইকেট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *