বৈশ্বিক সমস্যা সমাধানে সংসদীয় কূটনীতি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে– স্পীকার


» কামরুল হাসান রনি | ডেস্ক ইনচার্জ | | সর্বশেষ আপডেট: ১২ নভেম্বর ২০১৯ - ০৫:১৩:১৬ অপরাহ্ন

ঢাকা, ১২ নভেম্বর ২০১৯ : বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি বলেছেন, সংসদ, নির্বাহী বিভাগ ও বিচার বিভাগ জনগণের স্বার্থেই কার্য সম্পাদন করে থাকে। সরকারের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতকরণে সংসদ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। সংসদ সদস্য ও জনপ্রতিনিধিরা জনগণের কল্যাণে দায়িত্বশীল ভূমিকা রেখে চলেছেন বলে তিনি উল্লেখ করেন।
তিনি আজ রাজধানীর হোটেল ইন্টার কন্টিনেন্টালে বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল এন্ড স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজ (বিস) এবং ভারতের অবজারভার রিসার্চ ফাউন্ডেশন (ওআরএফ)-এর যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত ‘ঢাকা গ্লোবাল ডায়ালগ-২০১৯’ অনুষ্ঠানের “হোনিং লেজিসলেটিভ ইনোভেশন: পার্লামেন্টারী ডিপ্লোমেসি ফর দ্যা ফিউচার” শীর্ষক সেশনে কীনোট স্পীকার হিসেবে এসব কথা বলেন।
যুগোপযোগী এমন একটি আয়োজনের জন্য স্পীকার আয়োজকবৃন্দকে ধন্যবাদ জনিয়ে বলেন, এমন সৃজনশীল কর্মকান্ড নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবি রাখে। এ ধরনের আয়োজন অংশগ্রহণকারীদের সৃষ্টিশীল কাজে অনুপ্রাণিত করবে।
স্পীকার বলেন, বাজেট প্রণয়নসহ জনগুরুত্বপূর্ণ আইন পাসের ক্ষেত্রে সংসদের ভূমিকা মুখ্য। তিনি বলেন, দেশগুলোর মাঝে পারস্পরিক সহযোগিতা বৃদ্ধিতে সংসদীয় কূটনীতি ভূমিকা রাখছে এবং আইপিইউ, সিপিএ ও পিইউআইসি এক্ষেত্রে কাজ করছে। সংসদীয় কূটনীতি তথা আলোচনা ও সমঝোতার মাধ্যমে বিভিন্ন দেশের বিরাজমান সমস্যা ও চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করা সম্ভব।
ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, বহুপাক্ষিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে জলবায়ু পরিবর্তন, রোহিঙ্গা সংকট, বৈশ্বিক উষ্ণতা, শক্তি নিরাপত্তা, গ্রীন হাউজ গ্যাস নিঃসরণ, মানব পাচার ও খাদ্য নিরাপত্তার মত বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জগুলো সম্মিলিতভাবে মোকাবেলা করতে হবে। এর মাধ্যমে নতুন প্রজন্মের জন্য একটি অধিকতর নিরাপদ ও বাসযোগ্য পৃথিবী নিশ্চিত করা যাবে।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপি, নাহিম রাজ্জাক এমপি, শামীম হায়দার পাটোয়ারী এমপি, সাবেক সচিব এন আই খান, ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলী দাশসহ গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও গণমাধ্যমকর্মীগণ উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, ইন্দোএশিয়া অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে শিল্প, বাণিজ্য, অর্থনীতি, জলবায়ু, অভিবাসন ও সুশাসন নিয়ে পারস্পরিক অভিজ্ঞতা বিনিময়ের মাধ্যমে সমৃদ্ধি অর্জনের লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ‘ঢাকা গ্লোবাল ডায়ালগ-২০১৯’। গতকাল (সোমবার) এই সংলাপের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রাজধানীর হোটেল ইন্টার কন্টিনেন্টালে তিনদিন ব্যাপী এই অনুষ্ঠানে অংশ নিচ্ছেন ৪০টি দেশের ১৫০ জন প্রতিনিধি।