উত্তরা নিউজ উত্তরা নিউজ
অনলাইন রিপোর্ট


বিএনপি’র রাজনীতি করায় খেসারত দিচ্ছে প্রবাসী মজিবুর ও পরিবার






নিজস্ব প্রতিনিধি: বিএনপির রাজনীতি করাই কাল হয়ে দাঁড়াল মোঃ মজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যদের। যাত্রাবাড়ী থানার শ্রম বিষয়ক সম্পাদক মোঃ মজিবুর রহমান একের পর এক হামলা ও মামলার শিকার হয়ে জীবনের নিরাপত্তার জন্য সুদূর আমেরিকায় পাড়ি জমালেও এখনো প্রতিপক্ষের হুমকির মুখে রয়েছেন নগরীর ৭৮/১/বি কাজলার পারস্থ মোঃ মোস্তফা আলীর ছেলে মোঃ মজিবুর রহমান ও তার পরিবার।

ঘটনাসূত্রে জানা যায়, গত বছর দেয়া ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার রায়ের প্রতিবাদে মিছিল করার কারণে মোঃ মজিবুর রহমান সহ আরো অনেকের নামে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয় যার নং ২৮ তারিখ ১০/১০/২০১৮ ইং মামলার একদিন পর মোঃ মজিবুর রহমানের যাত্রাবাড়ীর বাসায় প্রতিপক্ষের একদল অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী তাকে খুঁজতে যায় কিন্তু তারা তাকে না পেয়ে তার ঘরের আসবাবপত্র ভাঙচুর সহ তাঁর তার পরিবারের সকল সদস্যকে হুমকি ধমকি প্রদর্শন করে।

এছাড়াও ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ মুজিবকে গ্রেফতার করার জন্য মাঝে মধ্যেই তার পরিচালিত ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান নিও পপুলার গার্মেন্টস-এর অফিসে অভিযান চালায় বলে জানা যায়। যার ফলশ্রুতিতে গত জানুয়ারি ২০১৯ মোঃ মুজিবুর রহমান-এর ভীতিহেতু ক্রমাগত অনুপস্থিতির কারণে তাঁর ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানটি বন্ধ হয়ে যায়। তদুপরি গোয়েন্দা পুলিশের লোকজন প্রায়ই তাঁর যাত্রাবাড়ীর বাসায় তাঁকে গ্রেফতারের জন্য হানা দিচ্ছে এবং তাঁর রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের লোকজনও তাঁকে খুঁজতে তার বাসার আশেপাশে মহড়া দিচ্ছে।

এদিকে মুজিবুর রহমানের যাত্রাবাড়ীস্থ সূত্রে জানা যায়, তিনি এখন সপরিবারে আমেরিকায় অবস্থান করছেন। এহেন পরিস্থিতিতে নিজের ও পরিবারের জীবন রক্ষার্থে তিনি আর বাংলাদেশে ফিরে আসবেন না।