বাড়ছে আয়কর মেলার সময়


» উত্তরা নিউজ | অনলাইন রিপোর্ট | সর্বশেষ আপডেট: ২০ নভেম্বর ২০১৯ - ১২:৫২:৪২ অপরাহ্ন

দশম আয়কর মেলার শেষ দিন আজ। করদাতাদের সুবিধার্থে মেলা সমাপ্তির সময় বিকেল ৬টা পরিবর্তে রাত ৮টা পর্যন্ত নির্ধারণ করা হয়েছে।

শেষ বিকেলে করদাতাদের উপচেপড়া ভিড় সামলাতে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে মেলা সূত্রে জানা গেছে। করদাতাদের বাড়তি সুবিধা দিতে গতকালও এনবিআর মেলার সময় এক ঘণ্টা বাড়িয়ে দিয়েছিল।

বিষয়টি নিশ্চিত করে এনবিআর সদস্য (কর প্রশাসন ও মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা) কালিপদ হালদার বলেন, ‘সকাল থেকে করদাতারা উৎসবমুখর পরিবেশে রির্টান জমা দিচ্ছেন। করদাতাদের সুবিধার কথা চিন্তা করে মেলা রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এবারের আয়কর মেলায় করদাতাদের ব্যাপক সাড়া লক্ষ্য করেছি। আমাদের আয়োজন সার্থক হয়েছে বলে মনে করি।’

এদিকে রাজধানীর বেইলী রোডের অফিসার্স ক্লাবে বুধবার সকাল ৯টা থেকে আয়কর মেলা শুরু হয়েছে। শুরু থেকেই করদাতা আসতে শুরু করেছেন। আজ শেষ দিন হওয়ায় অনেকেই অফিসে প্রবেশের পূর্বে রিটার্ন জমা দিতে এসেছেন।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) আয়োজিত আয়কর মেলার ৬ষ্ঠ দিনেই কর আদায় এরই মধ্যে দুই হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়ে গেছে। ৬ষ্ঠ দিন পর্যন্ত রাজস্ব আদায় হয়েছে দুই হাজার ১৬ কোটি ৪৫ লাখ ২১ হাজার ১২০ টাকা।

যেখানে সেবা গ্রহণ করেন ১৫ লাখ ১২ হাজার ৫৯২ জন করদাতা। আর রিটার্ন দাখিল হয়েছে পাঁচ লাখ ৩৯ হাজার ৯১০ এবং নতুন ই-টিআইন নিবন্ধন নিয়েছেন ২৬ হাজার ৮৩১ জন করদাতা।

আর মেলার ষষ্ঠ দিনে ৩৫৭ কোটি ৭৯ লাখ ৫৫ হাজার ৭৩৪ টাকা রাজস্ব আদায় হয়। এই দিন সেবা গ্রহণ করেন দুই লাখ ৫২ হাজার ৮১৫ জন, রিটার্ন দাখিল হয়েছে এক লাখ ১৯ হাজার ১৪৫ এবং নতুন ই-টিআইন নিবন্ধন নিয়েছেন পাঁচ হাজার ৩২৫ জন করদাতা।

এবারে মেলায় কর সংগ্রহ তিন হাজার কোটি টাকা হবে বলে এনবিআর চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া জানিয়েছিলেন।

‘কর প্রদানে স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ, নিশ্চিত হোক রুপকল্প বাস্তবায়ন’- এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে শুরু হয় সপ্তাহব্যাপী আয়কর মেলা। এবছর দেশের ৮টি বিভাগ, ৬৪টি জেলা, ৫৬টি উপজেলাসহ মোট ১২০টি স্পটে আয়কর মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। মেলার পরিধি গত বছরের মেলার চেয়ে কয়েকগুণ বৃদ্ধি করা হয়েছে।

মেলায় আয়কর রিটার্ন দাখিল, ই-টিআইন গ্রহণ, ই-পেমেন্ট, ই-ফাইলিং, ই-পেমেন্টের ব্যবস্থা রয়েছে। মেলার বিশেষ আকর্ষণ মোবাইল ব্যাংকিং সুবিধা গ্রহণ করে সম্মানিত করদাতাগণ রকেট, নগদ, বিকাশ ও প্রযোজ্য শিওর ক্যাশের মাধ্যমে আয়কর জমা দিতে পারছেন।

ঢাকার মেলায় করদাতাদের সুবিধার্থে ৫২টি আয়কর রিটার্ন বুথ, ৫৩টি হেল্প ডেস্ক, ব্যাংক বুথ (সোনালী ব্যাংক ১৩টি, জনতা ব্যাংক ৫টি এবং বেসিক ব্যাংক ৪টি), ই-পেমেন্টের জন্য ৩টি, ই-ফাইলিং এর জন্য ২টি বুথ পৃথক রয়েছে। এ ছাড়া মেলায় আগত করদাতাদের তাৎক্ষণিক স্বাস্থ্য সেবা প্রদানের জন্য একটি মেডিক‌্যাল বুথ রয়েছে।

উত্তরা নিউজ/এস,এম,জেড