বাংলাদেশের বন্যা ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনা হস্তান্তর করলেন চীনা রাষ্ট্রদূত


» কামরুল হাসান রনি | ডেস্ক ইনচার্জ | | সর্বশেষ আপডেট: ০৬ নভেম্বর ২০১৯ - ০৬:১৭:১৭ অপরাহ্ন

গঙ্গা বেসিন ও ব্রহ্মপুত্র-যমুনা বেসিনে বন্যা ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনা আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তর করেন চীনের মান্যবর রাষ্ট্রদূত লি জিমিং। আজ পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত Hand-over Ceremony of the Planning for Flood Management in Bangladesh শীর্ষক অনুষ্ঠানে চীনা অনুদানে সম্পাদিত সমীক্ষাভিত্তিক বন্যা ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনাটি বাংলাদেশের পক্ষে তুলে দেন। পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জনাব জাহিদ ফারুক, এমপি বক্তব্যকালে বলেন “চীনের অব্যাহত সহযোগিতা বাংলাদেশের উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করেছে এবং দু’দেশের মধ্যে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক আরো শক্তিশালী হবে”।

পরে মাননীয় পানি সম্পদ উপমন্ত্রী জনাব এ. কে. এম. এনামুল হক শামীম, এমপি বলেনঃ “বাংলাদেশ চীনের অকৃত্রিম বন্ধু এবং উন্নয়নের বিশ্বস্ত সহযোগী”। উপমন্ত্রী আরো বলেনঃ দুই দেশের মধ্যে স্বাক্ষরিত ৬টি প্রকল্পের কাজও দ্রুত বাস্তবায়িত হবে এবং দুই দেশের মধ্যে অধিকতর বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক অব্যাহত রেখে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে এগিয়ে যাবে”।

এসময় পানি সম্পদ সচিব জনাব কবির বিন আনোয়ার সহ মন্ত্রণালয়ের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, প্রকল্পটিতে যমুনা,গঙ্গা ও পদ্মা নদীর মূলধারা এবং ব্রহ্মপুত্র-যমুনার কয়েকটি শাখানদী (দুধ কুমার, ধরলা ও তিস্তা) বন্যা ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনা রয়েছে। প্রকল্পটির জন্য মোট ব্যয় হয় ২৫.৯৪ কোটি টাকা যেখানে চীন সরকারের কারিগরী অনুদান ২৫.৬৮ কোটি টাকা । এ প্রকল্পের ফলে বাংলাদেশে পরবর্তীতে মধ্য মেয়াদী এবং দীর্ঘ মেয়াদী বন্যা ব্যবস্থাপনার উন্নয়নের দিক নির্দেশনা প্রণয়ন করার কাজে বিশেষ সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

এর আগে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৪ সালের জুন মাসে চীন সফরকালে দুই দেশের সরকারের মধ্যে Feasibility Study of Flood Management in Bangladesh শীর্ষক প্রকল্পের বিনিময় পত্র স্বাক্ষর করেন। এর ধারাবাহিকতায় ২০১৬ সালে চীনের রাষ্ট্রয়াত্ত প্রতিষ্ঠান Yellow River Engineering Consulting Co. Ltd.(YREC)  সাথে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড (বাপাউবো) প্রকল্পটি বাস্তবায়নের জন্য চুক্তি স্বাক্ষর করেন। পরবর্তীতে ২০১৭ সালে চীনা পরামর্শক দল বাংলাদেশে এসে প্রকল্পের কাজ শুরু করেন এবং জুন ২০১৯ এ কাজ সমাপ্ত হয়। হস্তান্তর সনদপত্রে চীন সরকারের পক্ষে স্বাক্ষর করেন বাংলাদেশে নিযুক্ত চীনা দূতাবাসের মান্যবর রাষ্ট্রদূত জনাব লি জিমিং এবং বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড (বাপাউবো) এর মহাপরিচালক জনাব মোঃ মাহফুজুর রহমান।