বাংলাদেশের দুর্বল পররাষ্ট্রনীতির কারণে সীমান্তে বিএসএফ হত্যাযজ্ঞ চালাচ্ছে।


» এইচ এম মাহমুদ হাসান | | সর্বশেষ আপডেট: ০৮ জুলাই ২০২০ - ১২:০৪:৪৫ অপরাহ্ন

উত্তরা নিউজঃ ইসলামী আন্দোলনের আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর চরমোনাই বাংলাদেশ সীমান্তে ভারতীয় সীমান্ত রক্ষা বাহিনী-বিএসএফ’র নির্বিচার নির্যাতন ও গুলিতে প্রতিনিয়ত বাংলাদেশী নাগরিকদের হত্যার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করে ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন। তিনি বলেন, সরকারের নতজানু পররাষ্ট্রনীতির কারণে প্রতিনিয়ত ভারত সীমান্তে বাংলাদেশী নাগরিকদের নির্মমভাবে হত্যা করা হচ্ছে।

আজ মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, গত তিন মাসে বিএসএফ অন্তত: ২৭ জন বাংলাদেশী নাগরিককে হত্যা করেছে। সর্বশেষ গত ৬ জুলাই একজন বাংলাদেশী নাগরিককে ধরে নিয়ে বিএসএফ নির্যাতন চালিয়ে গুলি করে হত্যা করে। চীন, নেপালের সাথে না পেরে বাংলাদেশ সীমান্তে খুবই ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ করছে ভারতে। এহেন বর্বরোচিত হত্যাকান্ডে বাংলাদেশের জনগণ মর্মাহত ও ক্ষুদ্ধ। কিন্তু বাংলাদেশ সরকার বিএসএফ’র হত্যাকান্ডের বিরুদ্ধে টু-শব্দটিও করছে না। মূলত: নিজেদের ক্ষমতায় টিকিয়ে রাখার জন্য ভারতকে খুশী রাখতে সীমান্ত হত্যার প্রতিবাদ করছে না সরকার।
পীর সাহেব বলেন, ভারত সীমান্তে আর কোন বাংলাদেশী নাগরিক যাতে হত্যা, নির্যাতনের শিকার না হয় সে জন্য সরকারকে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। বাংলাদেশ সরকারকে ভারত সীমান্তে বিএসএফ কর্তৃক বাংলাদেশী নাগরিক হত্যার কড়া প্রতিবাদ করতে হবে।