এম. শরীফ হোসেন | নরসিংদী প্রতিনিধি এম. শরীফ হোসেন | নরসিংদী প্রতিনিধি


বর্ষা বৃষ্টিতে উৎপাদনে ঘাটতি, দাম বাড়ছে তাজা সবজির বাজার মূল্যে






টানা বৃষ্টির পরে কয়েক দিন আকাশ শান্ত থাকলেও ফের গুড়ি গুড়ি বা মাঝারি ধরণের বৃষ্টির কবলে পড়েছে দেশ।সেই সাথে রয়েছে বর্ষার পানি।বৃষ্টি আর বর্ষার কারণে দেশে তাজা শাক সবজি উৎপাদন ও সংগ্রহে ব্যাঘাত ঘটছে। বৃষ্টি বা বর্ষার পানিতে অনেক শাক সবজির জমি পানিতে ডুবে যাচ্ছে অথবা নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এসব কারণে উৎপাদন বা সংগ্রহ আশানুরুপ না হওয়াতে সবজির উৎপাদন খরচে এর প্রভাব পড়েছে। ফলে বিক্রির ক্ষেত্রে বাজার মূল্যে এর চাপ লক্ষ্যনীয় হয়ে উঠেছে।
শাক সবজির  খুচরা বাজার মূল্যে ৩/৪ দিনের ব্যবধানে কেজি প্রতি ১০ থেকে ২০ টাকা দাম বৃদ্ধির কারণ হিসেবে নরসিংদীর মাধবদী ও আশপাশের খুচরা তাজা শাক সবজি ব্যাবসায়ীরা এমনটি’ই জানিয়েছেন।
মাধবদী বাজারের ইমন নামের এক সবজি ব্যাবসায়ী বলেন,বৃষ্টির আর বর্ষার পানিতে অনেক সব্জির জমি ডুবে গেছে ফলে কৃষককে লোকসান গুনতে হচ্ছে। আর অনেকের জমিতে  পানি না উঠলেও বৃষ্টিতে সবজি নষ্ট গেছে। ফলে কৃষকের এ ক্ষতি পুরণে কিছুটা হলেও লাঘব করতে পাইকারি বাজারেই দাম বৃদ্ধি করা হয়েছে। সে হিসেবে খুচরা বাজারেও দাম বেড়েছে।
মারুফ ও শরীফ নামে পুরিন্দা বাজারের দুই সবজি ব্যাবসায়ীও একই কথাই বলেন। তারাও জানান,পাইকারি বাজারে দাম বেশী বলেই খুচরা বাজারে দাম বেশী।
এদিকে, শুক্রবার ২৬ জুলাই মাধবদীর পার্শ্ববর্তী পুরিন্দা বাজারে  সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়  গত মঙ্গলবার যে সবজির বাজার মূল্য ১০/২০ টাকা কম ছিল সে সবজির দাম আজ ১০/২০ টাকা বেশী। ৪০ টাকা কেজির কালো (লম্বা) বেগুন দাম বেড়ে হয়েছে ৬০ টাকা, ৪০ টাকার ঢেঁড়স  দাম বেড়ে হয়েছে ৫০ টাকা, দেশী উস্তে ৬০ টাকার দাম বেড়ে হয়েছে ৮০ টাকা, ৪০ টাকার ইন্ডিয়ান করলা দাম বেড়ে হয়েছে ৬০ টাকা। লাল শাকের কেজি ৩০ টাকা হতে বৃদ্ধি পেয়ে হয়েছে ৪০ টাকা।
তবে, বিভিন্ন সবজির দাম বাড়লেও টমেটোর মূল্যে রয়েছে স্বস্তিকর অবস্থা। ১০০ টাকার টমেটো দাম কমে হয়েছে ৭০/৮০ টাকা। কারণ হিসেবে ইন্ডিয়া হতে টমেটো আমদানী হচ্ছে বলে এর দাম কমেছে বলে জানান ব্যাবসায়ীগণ।