উত্তরা নিউজ উত্তরা নিউজ
অনলাইন রিপোর্ট


‘বর্তমান সামাজিক প্রেক্ষাপটে সংস্কৃতিকর্মীদের করণীয়’ শীর্ষক আলোচনা

সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট উত্তরা’র আয়োজনে অনুষ্ঠিত




২৭ জুলাই ২০১৯, শনিবার বিকাল ৩টায় উত্তরাস্থ ৪নং সেক্টর সংলগ্ন (কসাইবাজার রেলগেইট) হোটেল আমিরস-এ সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট উত্তরা’র এ আয়োজনে মুখ্য আলোচক হিসেবে অংশগ্রহণ করেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব গোলাম কুদ্দুছ।

বৃহত্তর উত্তরার বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, সংগঠক, সদস্য এবং সংস্কৃতিকর্মীদের জন্য আয়োজিত ‘বর্তমান সামাজিক প্রেক্ষাপটে সংস্কৃতিকর্মীদের করণীয়’ এই আলোচনায় সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট উত্তরার সভাপতি নাট্যজন মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আবৃত্তি শিল্পী আহ্কাম উল্লাহ্ এবং শিক্ষাবিদ ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব অধ্যাপক ড. রতন সিদ্দিকী।

সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট উত্তরার সহ-সভাপতি শফিউল গণির সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট উত্তরার সাধারণ সম্পাদক ড. সোলায়মান কবীর। সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট উত্তরা এবং বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দও আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন। উল্লেখ্য, বৃহত্তর উত্তরার প্রায় শতাধিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এবং প্রতিনিধিরা এ আয়োজনে অংশগ্রহণ করেন।

সম্প্রতি দেশব্যাপী ছেলেধরার নাম করে গুজব ছড়িয়ে গণপিটুনি দিয়ে মানুষ হত্যার যে অপসংস্কৃতির ষড়যন্ত্র চলছে তার বিরুদ্ধে সংস্কৃতিকর্মীদের গণসচেতনামূলক কার্যক্রম গ্রহণ, সেই সাথে এসব অপসংস্কৃতির ষড়যন্ত্র প্রতিহত করার পারমর্শ প্রদান করেন আলোচকবৃন্দ। মরণঘাতি ডেঙ্গুর আক্রমন থেকে পরিত্রানের লক্ষ্যে এডিস মশা নিধনে এলাকাভিত্তিক পরিচ্ছন্নতা অভিজান এবং সাংস্কৃতিক কার্যক্রমের মাধ্যমে সচেতনাতামূলক অনুষ্ঠান আয়োজন করারও পরামর্শ প্রদান করা হয়।

সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট উত্তরার সহ-সভাপতি শিক্ষাবিদ ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ড. রতন সিদ্দিকী আলোচনার সারসংক্ষেপ হিসেবে কিছু লিখিত প্রস্তাবনা উপস্থাপন করেন। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য প্রস্তাবনাগুলো হলো ১. বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকবৃন্দের সহযোগিতার মাধ্যমে ছাত্রছাত্রীদের সচেতনমূলক পরামর্শ প্রদান, ২. অঞ্চল ভিত্তিক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করে গণসমাবেশের মাধ্যমে ছেলেধরার নাম করে গুজব ছড়িয়ে গণপিটুনি দিয়ে মানুষ হত্যা না করে গুজবের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলা, ৩. বৃহত্তর উত্তরার সকল সংস্কৃতিকর্মীদের একত্রিত হয়ে প্রশাসনের সহযোগিতার মাধ্যমে এডিস মশা নিধনের প্রয়োজনীয় কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করা, ৪. গণসচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করা ইত্যাদি।

সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট উত্তরার সভাপতি নাট্যজন মিজানুর রহমান আলোচনায় উত্থাপিত প্রস্তাবনাগুলো যথাসম্ভব দ্রুত বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন, সাংস্কৃতিক আন্দোলনের নেতৃবৃন্দ এবং বৃহত্তর উত্তরার সকল সংস্কৃতিকর্মীদের সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করেন। সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট উত্তরার আয়োজিত ‘বর্তমান সামাজিক প্রেক্ষাপটে সংস্কৃতিকর্মীদের করণীয়’ শীর্ষক এ আয়োজন সফল করার জন্য সকলকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।