‘বঙ্গবন্ধু কখনো কারো সঙ্গে আপস করেননি’


» কামরুল হাসান রনি | ডেস্ক ইনচার্জ | | সর্বশেষ আপডেট: ১৪ নভেম্বর ২০১৯ - ১২:১০:১৯ অপরাহ্ন

মুক্তিযুদ্ধকালীন ৩০ লাখ শহীদ এবং মা-বোনেদের সম্ভ্রমহানি আমাদের জন্য অবশ্যই অনেক বড় ক্ষতি। তবে একটি নব্য স্বাধীন দেশের জন্য বড় সমস্যা ছিল দেশের অবকাঠামো এবং সামাজিক কাঠামো ভেঙে পড়া। আর সেই ভেঙে পড়া জায়গা থেকে একটি দেশকে টেনে তুলেছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

এসময় আলোচনায় আরও অংশ নেন- ভারতীয় কংগ্রেস নেতা শশী থারুর এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ড. কামাল চৌধুরী। আলোচনা সঞ্চালনা করেন অধ্যাপক সামসাদ মর্তুজা।

আফসান চৌধুরী বলেন, বঙ্গবন্ধু নিজে মধ্যবিত্ত পরিবার থেকে এসেছিলেন। এজন্য তিনি সাধারণ মধ্যবিত্তদের বিষয়গুলো ভালোভাবে বুঝতেন। একইসঙ্গে কোন বিষয়কে কীভাবে উপস্থাপন করতে হবে, সেটি তিনি খুব ভালোভাবে বুঝতেন, যা অন্য অনেক নেতা সেভাবে বুঝতেন না। এই জায়গা থেকে মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্তদের একটি বড় সাপোর্ট পেয়েছেন বঙ্গবন্ধু এবং সেটিকে তিনি সফলভাবে ব্যবহার করেছেন।

কংগ্রেস নেতা শশী থারুর বলেন, বঙ্গবন্ধু কখনো কারো সঙ্গে আপস করেননি। সবসময় বাংলাকে ভালোবেসেছেন। একইসঙ্গে তিনি নেতা হিসেবে সবাইকে উৎসাহিত করতে পারতেন।

একটি উদাহরণ দিয়ে তিনি বলেন, সেসময়ে উর্দুর জন্য যখন সবদিকে একটি আয়োজনের মতো ব্যাপার, তখন একটি মিটিংয়ে অংশ নেন বঙ্গবন্ধু এবং ইন্দিরা গান্ধী। সেই সময় ইন্দিরা গান্ধী ইংরেজিতে বক্তব্য দিলেও বঙ্গবন্ধু উঠেই বললেন, অন্য ভাষা নয়, শুধু বাংলা, বাংলা এবং বাংলা।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শততম জন্মবার্ষিকী পালন নিয়ে কামাল চৌধুরী বলেন, বঙ্গবন্ধু রাজনীতির কবি। তাকে এই উপাধি বাঙালিরা দেয়নি, দিয়েছে বিশ্ব। আর এই বিশ্ব নেতার শততম জন্মবার্ষিকী আন্তর্জাতিকভাবেই পালন করা হবে।