প্রধানমন্ত্রীর পিএস পরিচয়দানকারী এক প্রতারক কুমিল্লা ডিবি পুলিশের হাতে আটক


» এইচ এম মাহমুদ হাসান | | সর্বশেষ আপডেট: ১৩ অগাস্ট ২০২০ - ১২:২৮:৩১ অপরাহ্ন

শাহেদ করিমের মতো ছবি তুলে নয় বরং ছবি এডিট করে ভিআইপিদের সাথে নিজেকে জুড়ে দিয়ে বিভিন্ন প্রতারণার করা এক প্রতারক আজ কুমিল্লা জেলা ডিবি পুলিশের হাতে আটক হয়েছে। তাঁর নাম শেখ আকাশ আহমেদ শরীফ বলে জানায়। এই নামে তাঁর ফেইসবুক আইডিও চালায় এই প্রতারক।
‘কখনো পরিচয় দেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত রাজনৈতিক সচিব, আবার কখনো উপসচিব।
আবার নিজেকে দাবি করেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সম্পাদক। বর্তমানে আওয়ামীলীগের সদস্য। বাড়ি গোপালগঞ্জ বলে পরিচয় দিলেও তাঁর বাড়ি নেত্রকোনায় বলে পুলিশ জানতে পেরেছে।
পরিধান করেন মুজিব কোট এবং নৌকার ব্যাজ।
এমন পরিচয় ব্যবহার করেই সম্পর্ক গড়ে তুলেন মানুষের সাথে।
বুধবার বিকালে নগরীর বিসিক শিল্পনগরী এলাকায় ইটিল্যাব (ইউনানী) ফ্যাক্টরী থেকে তাকে আটক করা হয়।
সন্ধ্যায় জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সম্মেলনকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান
পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, নেত্রকোনা জেলার ওয়াজেদ আলীর ছেলে প্রতারক শরীফ উদ্দিন। এইচএসসি ভোকেশনাল পর্যন্ত লেখাপড়া করে। ভিন্ন পরিচয়ে তার দুটি ফেইসবুক আইডি রয়েছে। তার এসব আইডিতে মহামান্য রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সহ রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের সাথে নিজের ছবি ইডিটিং এর মাধ্যমে প্রদর্শন করে মানুষকে বিভ্রান্ত করে আসছিল।
প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এই প্রতারক আউট সোর্সিং কাজ করতো এবং এক পর্যায়ে চাকরি চলে যায়।
এরই মাঝে ফেইসবুকে প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক সচিব পরিচয়ে প্রতারক শরীফের সখ্যতা গড়ে ওঠে কুমিল্লা নগরীর বাসিন্দা ডা. বদরুল ইসলাম ও তাঁর স্ত্রী হাবিবা ইসলাম খানের সাথে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ফুফু বলে ডাকে সে হাবিবা ইসলামকে জানায়। তাদের আমন্ত্রণে সে কুমিল্লা বেড়াতে আসে এবং কোনো রকম প্রটোকল নিতে নাকি প্রধানমন্ত্রী তাকে নিষেধ করেছে ও প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে ছুটি নিয়ে এসেছে।
ভ্রমণের অংশ হিসেবে বুধবার দুপুরে ওই চিকিৎসকের বাসায় একটি নোয়াযোগে তাঁর সঙ্গীয় ৪ জনসহ স্থানীয় কিছু ছেলেদের মোটর সাইকেল বহর নিয়ে সে হাজির হয় এবং তাদের ফ্যাক্টরী পরিদর্শন করেন।
এদিকে ফেইসবুক আইডির লিংক ধরে কুমিল্লা জেলা পুলিশের সাইবার ইউনিট পর্যবেক্ষন করে বিকাল ৩টার দিকে তাকে আটক করে।
সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার ছাড়াও অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজিম-উল আহসান, শাহরিয়ার মোহাম্মদ মিয়াজী ও তানভীর সালেহীন ইমনসহ অন্যান্যরা।
সাংবাদিক সম্মেলনে কুমিল্লা জেলার এসপি সৈয়দ নুরুল ইসলাম জানান মামলার প্রস্তুতি চলছে।