উত্তরা নিউজ I সারাবাংলা রিপোর্ট উত্তরা নিউজ I সারাবাংলা রিপোর্ট


পাবনায় রাকিবুল হত্যাকাণ্ডের ৭ আসামি কে কারাগারে প্রেরণ!






পাবনার বেড়া পৌর এলাকার শেখপাড়া মহল্লার রাকিবুল ইসলাম ওরফে হকাই হত্যা মামলায় অভিযুক্ত ৭
আসামীর জামিন নামঞ্জর করে কারাগারে প্রেরণ করেছেন আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুরে পাবনার চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করেন আসামীরা। বিচারক আবু সালেহ
মোহাম্মদ সালাউদ্দিন জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

আসামীরা হলেন, মৃত লিয়াকত আলীর দুই ছেলে মুন্না হোসেন (৪২) ও রাজু হোসেন (৩৫), মৃত কেরু শেখের ছেলে নুর হক (৫২), তার ছেলে পুন্নু হক (২৬), মুকুল হোসেনের ছেলে রুবেল হোসেন (২৫), আব্দুল করিমের দুই ছেলে রবিউল ইসলাম (৩৫) ও মিলন হোসেন (৩০)।

বাদিপক্ষের আইনজীবি অ্যাডভোকেট সাজ্জাদ ইকবাল লিটন জানান, আসামীরা এর আগে গত ১ জুলাই
মহামান্য হাইকোর্টে প্রাথমিকভাবে জামিনের আবেদন করেন। হাইকোর্ট শুনানী শেষে তাদের জামিন নামঞ্জুর করে পাবনার চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেন। সেই মোতাবেক আসামীরা বৃহস্পতিবার পাবনার আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করলে বিচারক নামঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

উল্লেখ্য, গত ১০ জুন বসতবাড়ীর সম্পত্তি নিয়ে বিরোধের জেরে রাকিবুল ইসলামকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে
এলোপাথারী কোপায় প্রতিপক্ষের লোকজন। তাকে প্রথমে বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে
অবস্থার অবনতি হওয়ায় বগুড়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায়পরদিন ১১ জুলাই মারা যান রাকিবুল।

এ ঘটনায় রাকিবুলের মা মমতাজ বেগম বাদী হয়ে বেড়া মডেল থানায় মুন্না ও রাজুকে প্রধান আসামী করে ১৩ জনের নাম উল্লেখসহ একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এদিকে, গত ১ জুলাই হাইকোর্ট থেকে জামিন না পেয়ে ক্ষুব্ধ হয় আসামীরা।

তারা গত ১৪ জুলাই আবারও বাদিপক্ষের বাড়িতে হামলা চালিয়ে নাইম শেখ (১৮) ও আকাশ শেখ (১৮) নামের দুইজনকে এলোপাথারী কোপায়। তাদের বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় নাইম শেখের বড় ভাই রাজিব শেখ বাদি হয়ে ৮ জনকে আসামী করে মামলা করেন।

এ মামলায় এজাহার নামীয় আসামী আসমানী খাতুন (৪৩) ও আলো খাতুন (৩০) নামের দুইজনকে গ্রেপ্তার করে জেলহাজতে পাঠায় পুলিশ।