পলাশে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে বন্ধ


» উত্তরা নিউজ I সারাবাংলা রিপোর্ট | | সর্বশেষ আপডেট: ০৪ জুলাই ২০১৯ - ১২:০৫:৪৩ অপরাহ্ন

নরসিংদী সংবাদদাতা: নরসিংদীর পলাশ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা রুমানা ইয়াসমিনের হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষা পেলেন প্রমা রানী সরকার নামে এক শিক্ষার্থী।সংখ্যালগু পরিবারের এ মেয়ে  প্রমা রানী সরকার উপজেলার ফৌজি আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এবার এস.এসসি পরিক্ষায় উত্তীর্ণ হয়।
বুধবার (৩ জুলাই) দুপুরে উপজেলার ঘোড়াশাল পৌর এলাকার কাঠালিয়া গ্রামে বাল্য বিয়ে দেওয়ার সময় ওই বিয়ে বন্ধ করা হয়। পলাশ উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা রওশন আরা জানান, পৌর এলাকার কাঠালিয়া গ্রামের প্রদীপ সরকারের মেয়ে প্রমা রানী সরকারকে বাল্য বিয়ে দিচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশে ঘটনাস্থলে উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সেলিনা আক্তারকে নিয়ে ওই শিক্ষার্থীর বাল্য বিয়ে বন্ধ করি এবং প্রাপ্ত বয়স না হওয়া পর্যন্ত প্রমা রানী সরকারকে লেখা-পড়া শিখাবে ও তার আগে মেয়েকে বিয়ে দিবে না মর্মে প্রমার পরিবারকে অঙ্গিকারাবদ্ধ করাই।