নীলফামারীতে শীতার্তদের পাশে মানবতার ফেরিওয়ালা


» Md. Neamul Hasan Neaz | | সর্বশেষ আপডেট: ১১ জানুয়ারি ২০২০ - ০৯:৩৯:৫০ অপরাহ্ন

ওয়াসিব ইসলাম আসিফ, বিশেষ প্রতিনিধি: তীব্র এই শীত মানুষের জনজীবনে চরম দূর্ভোগ সৃষ্টি করেছে, যা অসহায় মানুষদের প্রত্যেকটি দিন অনেক কষ্টে কাটাতে হচ্ছে। শীত আসলে ধনী মানুষরা নানান ধরনের শীতবস্ত্র ক্রয় করে বেশ আরাম আয়েসে শীতের দিনগুলো পাড় করছে।আর এদিকে গরিব অসহায় মানুষগুলোর দিকে তাকালে বোঝা যায় এই শীতে শীতবস্ত্র ছাঁড়া তাদের জীবন কেমন ভাবে চলছে। প্রচন্ড ঠান্ডায় অসহায় মানুষদের হাহাকার ছাঁড়া আর কিছুই করার থাকেনা, কারণ তারা যে গরিব, তাদের যে শীতবস্ত্র কেনার মত টাকা নেই, তাই প্রচন্ড ঠান্ডাকে উপেক্ষা করে দিন অতিবাহিত করছে তারা।

স্বামী মারা গেছে দুই বছর আগে, দুই ছেলে কোনমতে কাজ করে নিজের বউ বাচ্চা নিয়ে দিন অতিবাহিত করছে, আর বিধবা মা নিজে মানুষের বাড়িতে কাজ করে অনেক কষ্ট করে একলা জীবন অতিবাহিত করছে, শীত আসতেই শুরু হয়েছে তার কষ্ট, কারণ তার যে শীত অতিবাহিত করার মত পর্যাপ্ত কোন শীতবস্ত্র নেই,রয়েছে শুধু একটি কাথা, যা দিয়েই কোনমতে শীতের রাতটুকু ঠান্ডায় হাহাকার করে কাটাচ্ছে সে। আজ হঠাৎ রাতের বেলা একঝাঁক মানবতার ফেরিওয়ালা তার বাড়িতে হাজির হয়ে তার গায়ে জরিয়ে দেয় শীতবস্ত্র, খুশিতে তার চোখ দিয়ে অশ্রু বেড় হয়ে আসে, আসবেই না কেন কারণ এবার একটু হলেও রাতে কম্বলের গরম পরশে তার রাতটুকু ভালোভাবে কাটবে। এতক্ষন বলছিলাম নীলফামারী সদর উপজেলার সংগলশী ইউনিয়নের মুসরত কুখাপাড়ার বাসিন্দা বিধবা মাজেদা বেগমের কথা।

এমনি অনেক অসহায় মানুষের বাড়িতে গিয়ে শীতবস্ত্র গায়ে জরিয়ে দেয় একঝাঁক মানবতার ফেরিওয়ালা। ফেরিওয়ালা যেমন অনেক কিছু নিয়ে পাড়ায় পাড়ায় ঘুরে বেরায় তেমনি নীলফামারীর সদরের “আলোকিত সংগলশী” স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের উদ্যোগে অসহায় শীতার্তদের বাড়িতে গিয়ে শীতবস্ত্র বিতরণ করে সংগঠনটির একঝাঁক মানবতার ফেরিওয়ালা। যাদের মূল উদ্দেশ্য তাদের এলাকার অসহায় শীতার্ত মানুষের মুখে হাসি ফোটানো।

আলোকিত সংগলশী স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্যরা নিজেরা টাকা দিয়ে অসহায় মানুষের জন্য শীতবস্ত্র ক্রয় করে।

শুক্রবার (১০ জানুয়ারী) রাতের বেলা আলোকিত সংগলশী স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্যরা শীতবস্ত্র নিয়ে বেড়িয়ে পরে শীতার্তদের বাড়িতে বাড়িতে, তারা নিজ হাতে অসহায় মানুষদের মাঝে সুষ্ঠভাবে শীতবস্ত্র বিতরণ করে।

মানুষের বাড়িতে বাড়িতে  শীতবস্ত্র বিতরণের সময় উপস্থিত ছিলেন “আলোকিত সংগলশী” সংগঠনের সিনিয়র সদস্য মিলন, মমিনুর, মকলেস, সাকিব, আব্দুল কুদ্দুস, ফারুক, মনোয়ার, মাসুদ, মোরসেদুল, আজিজুল, আবদুল্লাহ, সোহেলরানা, হাসনাত, শরিফুল, সংবাদকর্মী ওয়াসিব ইসলাম আসিফ সহ আলোকিত সংগলশী স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সমন্বয়ক মারুফ হাসান।

আলোকিত সংগলশী স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সমন্বয়ক মারুফ হাসান বলেছেন ” এই শীতে অসহায় শীতার্ত মানুষের পাশে দাঁড়াতে পেরে অনেক ভালো লাগছে, আমাদের সকল সদস্যরা যে যার সাধ্যমত টাকা দিয়ে শীতবস্ত্র বিতরণে অংশগ্রহণ করে। হয়ত এটি আমরা ক্ষুদ্র পরিসরে উদ্যোগ নিয়েছি, এরকম করে যদি আমাদের দেশের সকল মানুষ অসহায় শীতার্তদের পাশে দাঁড়ায় তাহলে হয়ত কোন মানুষ প্রচন্ড হারকাঁপানো ঠান্ডায় হাহাকার করবে না। আসুন বাড়ির পাশের অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়াতে চেষ্টা করি এবং নিজেকে একজন মানবতার সৈনিকে রুপান্তর করি।

এ বিষয়ে সংগঠনটির সদস্য শরিফুল ইসলাম বলেন” আজ কেন জানি মনের ভিতরে অন্যরকম একটা আনন্দ লাগতেছে, ক্ষুদ্র পরিসরে হলেও কোন অসহায় শীতার্ত মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে পেরেছি এর থেকে আর বড় পাওয়া কিছুই নেই, ইনশাআল্লাহ এভাবেই প্রতিবছর অসহায় মানুষের মাঝে মানবতার ফেরিওয়ালা হয়ে শীতবস্ত্র বিতরণ করবে আমাদের আলোকিত সংগলশী স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।

উল্লেখ্য যে, বিগত আট মাস যাবত আলোকিত সংগলশী স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন নানা ধরনের কর্মসূচী করে আসছে, বৃক্ষ রোপন, কুইজ প্রতিযোগিতা, বিজয় দিবস উদযাপন ইত্যাদি কর্মসূচীর মাধ্যমে সংগঠনটিকে মানুষের মাঝে তুলে ধরে। সংগঠনটির মূল উদ্দেশ্য, বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ, নিরক্ষতা দূরীকরণ, অসহায় মেধাবী শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়ানো, সহ ইভটিজিং প্রতিরোধ নিয়ে কাজ করছে।