নিয়তির পরিহাসে

মোঃ আবু বকর সিদ্দীক

» উত্তরা নিউজ টোয়েন্টিফর, ডেস্ক রিপোর্ট | | সর্বশেষ আপডেট: ১৯ মে ২০২০ - ০২:১২:১৫ অপরাহ্ন

জীবনের ঘাটে ঘাটে, কত স্মৃতি পড়ে মনে,
অনেক ঘটনাই গেছি ভুলে,
তবু কিছু দোলা দেয় বারেবারে,
ঝাপসা করে তুলে চোখ,
থাকি বসে আনমনে।

মিনতি অনেক ভালো মেয়ে,
লেখা পড়ায় সেরা স্কুলে,
গানে,নাচে,দৌড়,ঝাপ, অংকনে
সব তার দখলে,প্রজাপতির মত উড়ে চলে,
আদরে মেয়ে ঘরে এসে দেখে,
হাড়ি চড়ে না উনুনে,
কিছু ঢেঁকিশাক সেদ্ধ আছে,
জল আর লবণে।
পিতা তার আসে ছাই ভষ্ম গিলে
রাত দুপুরে,
মা চলে গৃ্হসাথীর কাজ করে,
ধুন্ধুমার লাগে রোজ দুজনে,
মিনতি জড়সড় হয়ে কেঁদে
ফেলে অঝোরে,।

বস্তির বড় ভাইয়ের ম্যানেজার
মুখে দিয়ে খিলি পান,
গলায় ঝুলিয়ে চেইন,
জিন্সের প্যান্ট পরে,
কি যেন বলে বারেবারে
মিনতি ভয় পেয়ে
পালায় সেখান থেকে,
থাকে ঘরে বসে চুপটি
করে।

মিনতির প্রজাপতির ডানা গেল
ভেঙ্গে,
বন্য প্রাণীর আক্রোশ নিয়ে,
ম্যানেজার ভাড়া বাকির অজুহাত তুলে
তাদের কে তাড়ায় বস্তি থেকে,
বলে অনেক কথা জোরেশোরে, মিনতির চরিত্র তুলে।

অনেক দিন পরে আছি বসে পার্কের শীতল ছায়ায়,
মিনতিকে দেখি মুখে নিয়ে পান,
ধরেছে হালকা গান,
লাল রঙ্গের শাড়ী পরে,
ঠোঁটে মেখে লাল পলিশ
পায়ে আলতা দিয়ে, বাহারী
স্যান্ডেল পরে,
রয়েছে সখিদের নিয়ে,
খুঁজছে কাকেও যেন হন্য হয়ে,
নিয়তির পরিহাসে তুখোড়
কিশোরী আজ এই পথে!!