নারীশিক্ষা প্রসারের মাধ্যমে বাল্যবিবাহ রোধ করতে হবে -স্পীকার


» কামরুল হাসান রনি | ডেস্ক ইনচার্জ | | সর্বশেষ আপডেট: ১৮ জানুয়ারি ২০২০ - ০৭:৫৪:৩১ অপরাহ্ন

বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি বলেছেন, নির্বাচনী এলাকার জনগণের সাথে মতবিনিময় জরুরি, কেননা তৃণমূলের জনগণই প্রতিনিয়ত সকল সমস্যা মোকাবেলা করে। সংসদ সদস্যগণ এলাকার সামগ্রিক উন্নয়ন দেখভাল করার পাশাপাশি বিষয়ভিত্তিক সমস্যা যেমন- বাল্যবিবাহ, মাতৃমৃত্যু হ্রাস, জঙ্গী দমন, মাদকমুক্ত সমাজ গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারেন।

আজ শনিবার বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ নূর -ই- আলম চৌধুরী এমপি-র নির্বাচনী এলাকা (২১৮ মাদারীপুর-১) শিবচরস্থ চৌধুরী ফাতেমা বেগম পৌর অডিটোরিয়ামে এসপিসিপিডি প্রকল্পের আওতায় ‘বাল্যবিবাহ প্রতিরোধপূর্বক মাতৃমৃত্যু হ্রাসকরণ’ শীর্ষক পরামর্শ কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে স্পীকার এসব কথা বলেন। এর পূর্বে শিবচরের দত্তপাড়ায় বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের  চীফ হুইপ নূর -ই- আলম চৌধুরী এমপি-র পিতা মরহুম ইলিয়াস আহমেদ চৌধুরী-র কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন স্পীকার, চীফ হুইপ ও সংসদ সদস্যবৃন্দ। পরে ইলিয়াস আহমেদ চৌধুরী (দাদা ভাই) কলেজ মসজিদের নির্মাণ কাজ ও প্রতিবন্ধীদের জন্য নির্মিত কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র পরিদর্শন করেন স্পীকার।

যুগোপযোগী এমন একটি পরামর্শ কর্মশালা আয়োজনের জন্য আয়োজকবৃন্দকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, এমন সৃজনশীল উদ্যোগ নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবি রাখে। এ ধরনের আয়োজন বাল্যবিবাহ প্রতিরোধের মাধ্যমে মাতৃমৃত্যু হ্রাস এবং নারীদের সামগ্রিক উন্নয়নে সকলকে অনুপ্রাণিত করবে।

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, নারীদের জন্য নিরাপদ পরিবেশ সৃষ্টি করতে সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। মানসিকতার পরিবর্তন ও সচেতনতা বৃদ্ধির মাধ্যমে নারীদেরকে শিক্ষিত ও স্বাবলম্বী করে গড়ে তুলতে হবে।

স্পীকার বলেন, বাংলাদেশ প্রতিজ্ঞা করলে- বাংলাদেশ পারে, কেননা দেশের নেতৃত্বে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মত শক্তিশালী ও দূরদর্শী নেতা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত করেছেন। বিশ্বকে তাক লাগিয়ে আমরা নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু তৈরি করছি। ২০২১ রূপকল্প বাস্তবায়নে ও ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনে নারীদের উন্নয়নের মূল স্রোতে সম্পৃক্ত করতে হবে। নারীদের পিছিয়ে না রেখে অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়ন নিশ্চিত করতে হবে। নারীদের শিক্ষায় এগিয়ে দিতে হবে- তবেই বাল্যবিবাহ রোধ করা যাবে এবং মাতৃমৃত্যু হ্রাস পাবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান-এর সভাপতিত্বে কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের  চীফ হুইপ ও অত্র এলাকার সাংসদ নূর -ই- আলম চৌধুরী এমপি, বাংলাদেশে জাতিসংঘের আবাসিক প্রতিনিধি মিয়া সেপ্পো, ইউএনএফপিএ প্রতিনিধি ড. আশা টার্কেলসন বক্তব্য রাখেন। এছাড়া, অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ এমপি, ডা. আ ফ ম রুহুল হক এমপি,  ফখরুল ইমাম এমপি, এসপি মাহবুবুর রহমান, এডিসি আজাহারুল ইসলাম বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে আ স ম ফিরোজ এমপি, এ বি তাজুল ইসলাম এমপি, শামসুল হক টুকু এমপি, মেহের আফরোজ এমপি, আব্দুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব এমপি, সৈয়দা জাকিয়া নূর এমপি, ফখরুল ইমাম এমপি, নজরুল ইসলাম বাবু এমপি, ডা. হাবিবে মিল্লাত এমপি, রাজী মোহাম্মদ ফখরুল এমপি, সুবর্ণা মুস্তাফা এমপি, অপরাজিতা হক এমপি, শবনম জাহান শিলা এমপি, নাহিদ ইজাহার খান এমপি, আদিবা আনজুম মিতা এমপি, সংশ্লিষ্ট গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দসহ গণমাধ্যমকর্মীগণ উপস্থিত ছিলেন।