নামধারী সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে কবে জাগবে উত্তরার প্রকৃত সাংবাদিকরা?


» মুহাম্মদ গাজী তারেক রহমান | উত্তরা নিউজ, স্টাফ রিপোর্টার | সর্বশেষ আপডেট: ১৩ জুন ২০১৯ - ০২:৩৩:৫৯ অপরাহ্ন

উত্তরায় সাংবাদিক মহলের ক্রান্তিকাল চলছে। কিছুদিন পর পরই উত্তরা ও আশপাশের থানাগুলোতে সাংবাদিক পরিচয়ে গ্রেফতার হচ্ছে অসাধু মহলের সদস্যরা। এদের কেউ কেউ ইয়াবা ব্যবসায়ী, ধূর্ত-প্রতারক, চাঁদাবাজ, নারী কেলেংকারিসহ দেহ ব্যবসার সাথে জড়িত। আশ্চর্যের বিষয় এই যে, গ্রেফতারের পূর্বে এরা সকলেই সাংবাদিক। পুরো উত্তরায় এসব নামধারী সাংবাদিকদের এতটাই আনাগোনা যে উত্তরার চোর, বাটপার, দখলদার, চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসী সর্বমহলেই এরা পরিচিত। আর এই পরিচিতির একটাই কারণ, সব জায়গা থেকে প্রতি মাসে টাকা উত্তোলন! ‘টাকা না দিলে নিউজ করে দিব।’ আর এসবের ভয়ে দুষ্কৃতিকারীরাই যেন এসব নামধারী সাংবাদিকদের পদতলে আচ্ছন্ন। এর ফলে মাস শেষে কেউ দিয়ে এবং কারও নেয়ার বিনিময়ে অত্র অঞ্চলে কলুষিত হচ্ছে ‘সাংবাদিক’ শব্দটি। এজন্য চাঁদা প্রদানকারী ও সাংবাদিক পরিচয়ে গোপনে চাঁদাবাজিসহ নানা অপকর্মের সাথে জড়িতরাই একমাত্র দায়ী। যার ঘাঁ পোহাতে হচ্ছে অত্র অঞ্চলের পুরো সাংবাদিক মহলকেই এবং এর অন্যতম শিকার হচ্ছেন প্রকৃত সাংবাদিকরা।

উত্তরায় সাংবাদিক পরিচয়ে নানা অপকর্মের যেসব হিসাব রয়েছে, তা এতটাই ব্যাপক যে সেটি অত্র অঞ্চলের কারো অজানার কিছু নয়। চলতি বছরেই নামধারী সাংবাদিক পরিচয়ে যারা পুলিশ ও র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার হয়েছে, সেসব অপরাধীদের আমলনামাই বলে দেয় এরা সাংবাদিক পরিচয়ে প্রকৃত সাংবাদিকদের কতটা ক্ষতি করেছে। যেখানে সাংবাদিকদের সম্মান থাকার কথা আকাশচুম্বী অথচ অত্র অঞ্চলে মহান এই পেশাটি আজ কলুষিত হয়ে সুশীল সমাজের কাছে ঘৃণিত একটি শব্দে রূপ নিয়েছে। এর অন্যতম কারণ হিসেবে ‘প্রকৃত সাংবাদিকদের নীরবতা’ই হচ্ছে প্রধান দায়ী। কেননা উত্তরাতে পেশাগতভাবে যারা সাংবাদিকতা করছেন, তারা একাধিক সাংবাদিক সংগঠনে আজ বিভক্ত। ফলে কোনরূপ ত্বোয়াক্কা ছাড়াই যে কেউই এখানে নিজেকে সাংবাদিক পরিচয়ে যা ইচ্ছে তাই করে যাচ্ছে। এসবের কুপ্রভাব পোহাতে হচ্ছে অত্র অঞ্চলের সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে সর্বস্তরের জনগণকেই।

তাই উত্তরাতে সাংবাদিকতার মত মহান পেশাটিকে কলুষতামুক্ত ও সাংবাদিকদের উপর সর্বসাধারণের ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি ফিরিয়ে আনতে এবং তথাকথিত নামধারী সাংবাদিকদের অপকর্মের বিরুদ্ধে সকলকে সোচ্চার হতে হবে।