নওগায় অবিরাম বর্ষণে আত্রাই নদীর পানি বৃদ্ধি : জনমনে আতংক


» এইচ এম মাহমুদ হাসান | | সর্বশেষ আপডেট: ০৬ জুলাই ২০২০ - ১১:০৫:১৯ পূর্বাহ্ন

এমরান মাহমুদ প্রত্যয়, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি:
নওগাঁর আত্রাইয়ে অবিরাম বর্ষণে ও উজান থেকে নেমে আসা ঢলের পানির তোড়ে আত্রাই নদীর পানি আশঙ্কাজনক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে।
নদীর পানি বাড়ার সাথে সাথে উপজেলার ৮ ইউনিয়নে  আমনচাষী কৃষকদের ও জনমনে  চরম আতংকের সৃষ্টি হয়েছে।  কোনভাবেই যেন বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ভেঙ্গে ফসলহানি না হয় এ জন্য কড়া নজরদারি রাখছেন উপজেলা প্রশাসন।
এদিকে বর্ষা মৌসুমের শুরু থেকে আত্রাই নদীতে পানির চাপ থাকায় অসময়ে বন্যার কারণে কৃষকের  আমন চাষের বীজ তলা পানির নীচে তলিয়ে যাওয়ায় আমন চাষ অনিশ্চিত হওয়ায় কৃষকেরা হতাশায় জীবন যাপন করছে
ইতোমধ্যেই উপজেলার মনিয়ারী, ভোঁপাড়া, বিশা, পাঁচুপুর ও শাহাগোলা,আহসানগঞ্জ সহ ৮ ইউনিয়নেই কৃষকদের আমন ধান রোপন অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে । গত কয়েক দিনের অবিরাম বর্ষণে ও উজান থেকে নেমে আসা পানির তোড়ে হঠাৎ করে আত্রাই নদীর পানি আশঙ্কাজনক হারে বেড়ে গেছে। গতকাল  এ সংবাদ লেখা পর্যন্ত আত্রাই নদীর পানি বিপদসীমা ছুঁই ছুঁই অবস্থা। উপজেলার বিভিন্ন স্থানে নাজুক পরিস্থিতি রয়েছে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের। এ জন্য কৃষক ও এলাকার জনসাধারণ  রয়েছে চরম আতঙ্কে। এদিকে নদীর পানি বৃদ্ধির সাথে সাথে উপজেলার রায়পুর, উদনপৈ, জাতোপাড়া, মিরাপুর, ফুলবাড়ি, জাতআমরুল জিয়ানীপাড়াসহ প্রায় ২৫ টি গ্রামের লোকজন পানি বন্দি হয়ে পড়েছে।
মিরপুর  গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য রেজওয়ান আব্দুল মালেক বলেন, নদীর পানি বৃদ্ধির কারনে আমরা পানিবন্দী হয়ে পড়েছি। আমাদের রাস্তা পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় যাতায়াত কষ্টকর হয়ে পড়েছে। আরেক ইউপি সদস্য আব্দুল মজিদ মল্লিক বলেন, ২০১৫ সালে উপজেলার ফুলবাড়িতে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ভেঙ্গে গেলেও তা আজও সংস্কার করা হয়নি। এটি এখন এলাকাবাসীর জন্য মরণ ফাঁদ হয়েছে।
আত্রাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ছানাউল ইসলাম বলেন, আত্রাইয়ের বন্যা পরিস্থিতি আমরা নিবিরভাবে পর্যবেক্ষণ করছি। সকল জনপ্রতিনিধিদের সজাগ থাকতে বলা হয়েছে। কোন জায়গায় যেন বাঁধ ভেঙ্গে জনগণের জানমালের ক্ষতি না হয় এ জন্য আমরা সজাগ দৃষ্টি রাখছি।