উত্তরা নিউজ উত্তরা নিউজ
অনলাইন রিপোর্ট


নতুন আইফোন যে কারণে ওজনে ভারী






নতুন ফোন মানেই নতুন কিছু। আগের চেয়ে ভালো কিছু, সেরকম আশাই করে থাকেন মোবাইলপ্রেমীরা। আর আইফোন হলে তো কথাই নেই। অনেকের ঘুম আসেনা কবে নতুন আইফোনের ঘোষণা আসবে? সেখানে কি কি থাকবে সেটা জানার আগ্রহ থাকে।

সাধারণত আইফোন বা নতুন ফোন সিরিজের আগের ফোনের চেয়ে স্টাইলিশ এবং সুন্দর হয় বা সুন্দর করার চেষ্টা থাকে। কিন্তু নতুন আইফোন ১১ দেখে অনেকেই অবাক! কারণ এই আইফোন আগের আইফোনের চেয়ে একটু মোটা এবং ওজনেও ভারী। বর্তমানে কে কত পাতলা এবং হালকা ফোন বের করবে তার প্রতিযোগিতা চলছে অথচ আইফোন এই সময়ে তার আগের ফোনগুলোর তুলনায় একটু মোটা এবং ভারী ফোন নিয়ে এলো। কারণ কী?

একটাই কারণ ফোনের ব্যাটারি লাইফ। স্মার্টফোনে যত ফিচার বাড়ছে ততই তার শক্তি অপচয় হচ্ছে। ফলে সাধারণ ব্যাটারি দিয়ে আর কুলানো যাচ্ছেনা। তাই ডিজাইন ছেড়ে আপাতত ব্যাটারি লাইফকেই গুরুত্ব দিয়েছে অ্যাপল। ব্যাটারির প্রতি গুরুত্ব আমরা আইফোনের আগের ফোনগুলোতেও দেখেছি। যতই তারা ফোন হালনাগাদ করেছে ব্যাটারি লাইফ ততই ভালো হয়েছে। যেমন, আইফোন সেভেন আইফোন ৬ এর চেয়ে দুই ঘণ্টা ব্যাটারি লাইফ বেশি ছিল। তেমনি আইফোন টেন-ও দুই ঘণ্টা ব্যাটারি লাইফ বেশি ছিল আইফোন সেভেন থেকে। তেমনি আইফোন টেনএস এবং টেনএস ম্যাক্সও তেমনি আগের আইফোন টেন এর চেয়ে প্রায় ত্রিশ মিনিট এবং এক ঘণ্টার মতো বেশি ব্যাটারি লাইফ ছিল।

সেই ধারাবাহিকতায় নতুন আইফোন ১১ প্রো এবং আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্স আগের আইফোনের চেয়ে চার ঘণ্টা এবং পাঁচ ঘণ্টা মতো বেশি ব্যাটারি লাইফ নিয়ে এসেছে। বড় আইফোন চার ঘণ্টার মতো বেশি ব্যাটারি লাইফ আর ছোট আইফোন পাঁচ ঘণ্টার মতো বেশি ব্যাটারি লাইফ নিয়ে এসেছে। ফলে এবারের আইফোনে একটু মোটা ব্যাটারি ব্যবহার করতে হয়েছে। যার কারণে আইফোনের বডিও একটু মোটা আর ওজনে হয়েছে ভারী। সবই করা হয়েছে ব্যবহারকারীর অধিক সুবিধার কথা বিবেচনা করে।

উত্তরা নিউজ/এস,এম,জেড