ধামরাইয়ে ৪ টি ইটের ভাটা ধ্বংশ অর্ধকোটি টাকা জরিমানা


» কামরুল হাসান রনি | ডেস্ক ইনচার্জ | | সর্বশেষ আপডেট: ০৬ নভেম্বর ২০১৯ - ০৬:০০:১৭ অপরাহ্ন

ঢাকার ধামরাইয়ে পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র ছাড়াই ইট তৈরি, ইট পোড়ানোসহ জমির টপ সয়েল ব্যবহারের অপরাধে আজ বুধবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ৪ টি ইট ভাটা ভেকু দিয়ে গুড়িয়ে দিয়েছে পরিবেশ অধিদপ্তরের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট। এছাড়াও প্রত্যেক ইটভাটার মালিককে ১২ লাখ টাকা করে জরিমান করা হয়েছে।

জানা গেছে, ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন নিয়ন্ত্রন আইন অনুযায়ী ২-৩ ফসলি আবাদি কৃষি জমি, আবাসিক এলাকা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, হাট বাজার থেকে কমপক্ষে এক কিলোমিটার এবং গ্রামীন বা ইউনিয়ন পরিষদ রাস্তা থেকে অন্তত অর্ধ কিলোমিটারের মধ্যে ইটভাটা স্থাপন করা যাবে না। অথচ রাজধানী ঢাকার অদূরে ধামরাইয়ে এ ধরনের নিয়ম ভঙ্গ করে স্থাপন করা হয়েছে ইটের ভাটা।

এ সব ইটের ভাটার মালিক পূর্বে নানা কৌশলে ছাড়পত্র পেলেও চলতি বছর পরিবেশ অধিদপ্তর থেকে কোন প্রকার ছাড়পত্র পায়নি। চলতি বছর ছাড়পত্র না পেলেও যাথারীতি তাদের ভাটায় ইট তৈরীর কাজ শুরু করেছে। এ তথ্যের ভিক্তিতে পরিবেশ অধিদপ্তরের মনিটরিং এন্ড এনফোর্সমেন্ট এর নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট কাজী তামজীদ আহম্মেদ একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাশে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের পাশে উপজেলার ডাউটিয়া নামক আবাসিক এলাকায় স্থাপিত খান ব্রিকস , ঈগল ব্রিকস, আইরিন ব্রিকস, ও হোসেন ব্রিকস অভিযান চালিয়ে ভেকু মেশিন দিয়ে ভাটা গুড়িয়ে দিয়েছে। সেইসাথে ইটভাটার প্রত্যেক মালিককে ১২ লাখ টাকা করে জরিমানা করেছেন। অভিযান চলাকালীন সময় ইটভাটার শ্রমিক ও এলাকার শতশত মানুষ উপস্থিত ছিলেন।