ধর্মনিরপেক্ষতা নয় বরং ইনশাআল্লাহ-ই হলো মুক্তিযুদ্ধের ভিত্তি…মুফতি ফয়জুল করীম


» আশরাফুল ইসলাম | ডেস্ক এডিটর | | সর্বশেষ আপডেট: ০১ জানুয়ারি ২০২০ - ০১:১৮:৫৪ অপরাহ্ন

১৯৭১ সালের ঐতিহাসিক ভাষনে বঙ্গবন্ধুর ইনশাআল্লাহ-ই ছিলো মুক্তিযুদ্ধের ভিত্তি। ১৯৭১-এর মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ের ব্যবধান-কে উপলব্ধি না করে ১৯৭২-এর সংবিধানে ভারতের ধর্মনিরপেক্ষতাকে ভিত্তি বলে যারা বিভ্রান্ত করেন তাদের বক্তব্যকে তিনি অমূলক হিসেবে আখ্যায়িত করেন।

গতকাল ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯ মঙ্গলবার ঢাকার মেরুল বাড্ডাস্থ শাদী মহল পার্টি সেন্টারে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি মুনতাছির আহমাদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মাদ আব্দুর রাজ্জাকের সঞ্চালনায় নগর সম্মেলনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সিনিয়র নায়েবে আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত আলোচনা করেন।

 

তিনি আরও বলেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত সাহার পক্ষাবলম্বন করে ক্ষমতাসীনরা রাষ্ট্র পরিচালনা করছেন। ভারতে মুসলিমদের ওপর সাম্প্রদায়িক পদক্ষেপের নগ্ন রুপ এনআরসি ও ক্যাবের বিরুদ্ধে খোদ ভারতে প্রতিবাদ হলেও ক্ষমতাসীন সরকারের এ ব্যাপারে নিরবতা প্রশ্নবিদ্ধ। মুফতি ফয়জুল করীম ডাকসু ভিপি নুর ও ছাত্রদের অন্যায়ের প্রতিবাদ করলেই তাদের উপর ন্যাক্কারজনকভাবে হামলা ও মামলার তীব্র নিন্দা জানান।

এছাড়াও উপস্থিত ছাত্র সমাবেশে তিনি মুক্তিযুদ্ধের ঘোষণাপত্রে উল্লেখিত সাম্য, মানবিক মর্যাদা ও সামাজিক ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় ইসলাম-ই কার্যকর পন্থা হিসেবে দাবী করেন। নগর সম্মেলনে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি মুহাম্মাদ আব্দুল জলিল। প্রধান বক্তার বক্তব্যে ইশা ছাত্র আন্দোলনের সর্বস্তরের দায়িত্বশীলদের চিন্তায় প্রসারতা, শিক্ষায় অগ্রগামিতা, কর্মে দক্ষতা, ব্যাক্তিত্বে স্বচ্ছতা ও আদর্শিক বিপ্লবের মাধ্যমে সর্বত্র জাগরণের আহ্বান জানান। সম্মেলনে বিশেষ অতিথি ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান ও সহকারী মহাসচিব আলহাজ্ব মুহাম্মাদ আমিনুল ইসলাম।

নগর সম্মেলন-২০২০ অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ লন্ডন কেন্দ্রীয় শাখার সাধারণ সম্পাদক জনাব শফীক উদ্দীন মিয়া, ঢাকা মহানগর উত্তরের সহ প্রচার সম্পাদক শেখ মুহাম্মাদ সাইফুল ইসলাম, ছাত্র ও যুব বিষয়ক সম্পাদক মুফতি শরিফুল ইসলাম, ইশা ছাত্র আন্দোলনের সাবেক নগর সভাপতি মানসুর আহমাদ সাকি, জহিরুল ইসলাম ইমরান, সহ সভাপতি আল আমিন, সাধারণ সম্পাদক এম রেজাউল করীম , ২০১৯ সেশনের সহ সভাপতি আব্দুল মালেক, প্রশিক্ষণ সম্পাদক মুস্তাফিজুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহদী হাসান, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শহীদুল ইসলাম, অর্থ সম্পাদক আবু হানীফ, দফতর সম্পাদক নাঈম বিন জামশেদ, কওমি মাদরাসা সম্পাদক জুনায়েদ আহমাদ, আলিয়া মাদরাসা সম্পাদক তাওহীদ, বিশ্ববিদ্যালয় সম্পাদক মাইদুল হাসান সিয়াম, কলেজ সম্পাদক আব্দুস সবুর, স্কুল সম্পাদক কাজী মঞ্জুরে এলাহী রুহিন, ছাত্রকল্যাণ সম্পাদক কাউসার আহমাদ, সাহিত্য ও সংস্কৃতি সম্পাদক ইউসুফ সিরাজী কার্যনির্বাহী সদস্য আবু বকর প্রমুখ নেতৃবৃন্দ। নগর সম্মেলন শেষে ২০২০ সেশনের জন্য মুহাম্মাদ আব্দুর রাজ্জাক কে সভাপতি, আব্দুল মালেক কে সহ সভাপতি ও শহীদুল ইসলাম কে সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ঘোষণা করে শপথ বাক্য পাঠ করানো হয়।