দ্বিতীয় সেশন রাঙাল নাঈম


» কামরুল হাসান রনি | ডেস্ক ইনচার্জ | | সর্বশেষ আপডেট: ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০ - ০২:২৭:৫৪ অপরাহ্ন

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ঢাকা টেস্টে আগে বোলিং করছে বাংলাদেশ।

মিরপুর শের-ই-বাংলায় দুই দলের একমাত্র টেস্টটি শুরু হয়েছে সকাল সাড়ে নয়টায়।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :

জিম্বাবুয়ে : ১৫০/৩  (৬০ ওভার)।

নাঈম রাঙালেন দ্বিতীয় সেশন

প্রথম সেশনে ১টি উইকেট তুলে নেয় বাংলাদেশ। দলীয় ৭ রানের সময় উইকেট পড়লেও এরপর ঘুরে দাঁড়ায় জিম্বাবুয়ে প্রিন্স মাসভাউরি ও ক্রেইগ আরভিনের ব্যাটে। তারা দুজন অবিচ্ছিন্ন থেকে মধ্যাহ্ন বিরতিতে যান। বিরতি থেকে ফেরার পর দ্বিতীয় উইকেটে শতরানের জুটি গড়েন। কিন্তু তাদের জুটি বেশি বাড়তে দেননি নাঈম হাসান। কট অ্যান্ড বোল্ড করে মাসভাউরিকে ফিরিয়ে ১১১ রানের জুটি ভাঙেন। এরপর দ্রুতই ফেরান অভিজ্ঞ ব্রেন্ডান টেলরকে। এরপর আরভিন ও সিকান্দার রাজা ১৬ রান তুলে চা বিরতিতে যান। আরভিন ৬০ রান নিয়ে অপরাজিত আছেন। এটা তার টেস্ট ক্যারিয়ারের পঞ্চম ফিফটি।

নাঈম ফেরালেন মাসভাউরি-টেলরকে

বিপজ্জনক হয়ে ওঠা প্রিন্স মাসভাউরি ও ক্রেইগ আরভিনের জুটি ভেঙেছেন নাঈম হাসান। দলীয় ১১৮ রানের মাথায় নাঈমের বলে কট অ্যান্ড বোল্ড হয়ে ফিরেন মাসভাউরি। আরভিনের সঙ্গে ১১১ রানের ‍জুটি গড়ে ফিরেন তিনি। ১৫২ বল খেলে ৯ চারে ৬৪ রান আসে তার ব্যাট থেকে। এরপর ১৩৪ রানের মাথায় নতুন ব্যাটন ব্রেন্ডান টেলরকে নিজের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত করেন নাঈম। ১১ বল খেলে ১০ রান করে নাঈমের বলে বোল্ড হয়ে যান তিনি।

শতরান পেরিয়ে জিম্বাবুয়ে

৭ রানে প্রথম উইকেট হারানোর পর প্রিন্স মাসভাউরি ও ক্রেইগ আরভিন মিলে দলীয় সংগ্রহকে ১০০ পার করেছেন। দ্বিতীয় উইকেটে ইতিমধ্যে তারা দুজন ৯৩ রান তুলেছেন। মাসভাউরি ৫৯ ও আরভিন ৩৩ রান নিয়ে ব্যাট করছেন। এই জুটি আস্তে আস্তে বিপজ্জনক হয়ে উঠছে বাংলাদেশের জন্য।

মাসভাউরির ফিফটি

বিরতি থেকে ফিরে আবু জায়েদ রাহীর করা ৩৪তম ওভারে ৪ মেরে ফিফটি পূর্ণ করেন প্রিন্স মাসভাউরি। ১০৪ বল খেলে ৮ চারে ৫০ পেরোন তিনি। ওই ওভারে আরো একটি চার হাঁকান। গেল জানুয়ারিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তার টেস্ট অভিষেক হয়েছে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে পান প্রথম ফিফটি। পঞ্চম টেস্ট খেলতে নেমে আজ বাংলাদেশের বিপক্ষে পেলেন দ্বিতীয় ফিফটির দেখা। এটাকে সেঞ্চুরিতে রূপান্তর করতে পারেনি কিনা দেখার বিষয়।

মধ্যাহ্ন বিরতি

দলীয় ৭ রানের মাথায় আবু জায়েদ রাহী ফেরান কেভিন কাসুজাকে। এরপর অবশ্য সলিট ব্যাটিং করেছে জিম্বাবুয়ে। অধিনায়ক ক্রেইগ আরভিন ও টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান প্রিন্স মাসভাউরি দেশে-শুনে ব্যাট করে ৮০ রান তুলে প্রথম সেশন শেষ করেছেন। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ইতিমধ্যে তারা ৭৩ রান সংগ্রহ করেছে। মাসভাউরি ৭ চারে ৪৫ রান নিয়ে ও আরভিন ৪ চারে ২৬ রান নিয়ে অপরাজিত আছেন।

৫০ রান পেরিয়ে জিম্বাবুয়ে

৭ রানের মাথায় কেভিন কাসুজাকে হারানোর পর জিম্বাবুয়েকে টানছেন ক্রেইগ আরভিন ও প্রিন্স মাসভাউরি। ইতিমধ্যে তারা দুজন ৫৩ রানের জুটি গড়েছেন। মাসভাউরি ৩৩ ও এরভিন ১৯ রান নিয়ে ব্যাট করছেন।

রাহীর প্রথম আঘাত

অষ্টম ওভারে জিম্বাবুয়ে শিবিরে প্রথম আঘাতটি করেছেন আবু জায়েদ রাহী। তার করা ষষ্ঠ বলটি কেভিন কাসুজার ব্যাট ছুঁয়ে গালিতে নাঈম হাসানের তালুবন্দি হয়। ২৪ বল খেলে ২ রান করে ফিরেন কাসুজা। এটা আবু জায়েদ রাহীর ২৫০তম প্রথম শ্রেণির উইকেট।

টস

জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক ক্রেইগ আরভিন টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

বাংলাদেশ একাদশ

তামিম ইকবাল, সাইফ হাসান, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিথুন, লিটন কুমার দাশ, নাঈম হাসান, তাইজুল ইসলাম, আবু জায়েদ রাহী ও ইবাদত হোসেন।

নাঈম ও মুশফিক দলে

মাহমুদউল্লাহ দলে নেই। তার জায়গায় এসেছেন মুশফিকুর রহিম। রুবেল হোসেন খেলেছিলেন সবশেষ টেস্ট। তার জায়গায় এসেছেন নাঈম হাসান।

জিম্বাবুয়ে একাদশ

সিকান্দার রাজা, রেগিস চাকাবা, ক্রেইগ আরভিন, কেভিন কাসুজা, তিমিসেন মারুমা, প্রিন্স মাসভাউরি, আইনসলে এনদোভু, ভিক্টর নায়ুচি, ব্রেন্ডান টেলর, ডোনাল্ড ত্রিপানো ও চার্লটন টিসুমা।

চার্লটন টিসুমা

টেস্ট ক্যাপ পেয়েছেন জিম্বাবুয়ের চার্লটন টিসুমা।

বাংলাদেশ বনাম জিম্বাবুয়ে, ‘সেঞ্চুরি’

এ ম্যাচের মধ্যে দিয়ে আন্তর্জাতিক ম্যাচের সেঞ্চুরি পূর্ণ করল বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ে। গত ২২ বছরে দুই দল তিন ফরম্যাট মিলিয়ে ৯৯ আন্তর্জাতিক ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে। আজ মিরপুরে পূর্ণ হল সেঞ্চুরি। ৯৯ ম্যাচে বাংলাদেশ জিতেছে ৫৭ ম্যাচে, জিম্বাবুয়ের জয় ৩৯, ড্র হয়েছে তিন ম্যাচ।  বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ে দুই দলই কোনো দলের বিপক্ষে এত ম্যাচ খেলেনি। বাংলাদেশ দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৭৯ ম্যাচ খেলেছে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। জিম্বাবুয়ে ৮৭ ম্যাচ খেলেছে পাকিস্তানের বিপক্ষে।

টেস্ট সংস্কৃতি বদলানোর তাড়ণা

টেস্ট ক্রিকেটে ঢেলে সাজাতে চান বাংলাদেশ দলের কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। বদলাতে চান দেশের টেস্ট সংস্কৃতি। ক্রিকেটের অভিজাত ফর‌ম্যাটকে দিতে চান পূর্ণরূপ। পাল্টাতে চান টেস্ট ক্রিকেট নিয়ে খেলোয়াড়, নীতি-নির্ধারকদের ভাবনা। মিরপুর টেস্ট দিয়েই পালাবদলের শুরু করতে চান বাংলাদেশের কোচ।

জয়ের খোঁজে বাংলাদেশ

শেষ ছয় টেস্টে প্রতিপক্ষের কাছে নাকানিচুবানি খেয়েছে বাংলাদেশ। নিউজিল্যান্ড ও ভারতের বিপক্ষে দুটি করে, আফগানিস্তান ও পাকিস্তানের বিপক্ষে একটি করে টেস্টে স্রেফ উড়ে গেছে বাংলাদেশ।  ছয় টেস্টের পাঁচটিতেই ইনিংস ব্যবধানে হার।

ব্যর্থতার বৃত্তে ঘুরপাক খাওয়া বাংলাদেশ জয়ের খোঁজে রয়েছে। মিরপুরে জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে জয়ে ফিরতে মরিয়া বাংলাদেশ। অধিনায়ক মুমিনুল নিজের প্রথম জয়ের খোঁজে। দুঃসময় কাটিয়ে উঠার চ্যালেঞ্জ নিয়ে মিরপুর শের-ই-বাংলায় নামতে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

 

সূত্রঃ রাইজিং বিডি