‘দুমলং’ বাংলাদেশের দ্বিতীয় উঁচু পর্বত


» উত্তরা নিউজ I সারাবাংলা রিপোর্ট | | সর্বশেষ আপডেট: ২৩ অগাস্ট ২০২০ - ১০:০৬:৩১ পূর্বাহ্ন

পানোয়াম বম, বান্দরবান: সম্প্রতিকালে সরকারী ভাবে বাংলাদেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পর্বত শৃঙ্খল হিসেবে পরিচিত লাভ করেন কেওক্রাডাং এর পাহাড়টি। যার উচ্চতা ৩১৭২ বর্গ ফুট। এ পাহাড়ে প্রাকৃতিক দৃশ্য দেখার জন্য আসে দেশের হাজার হাজার পর্যটক। কিন্তু কেউ জানেনা যে সম্প্রতিক বাংলাদেশে সর্বোচ্চ দ্বিতীয় পর্বতশৃঙ্খল  হিসেবে পাহাঁড় কোনটি। ঢাকায় নেচারাল অ্যান্ডভেনচার ক্লাব নামে একটি বেসরকারী ভ্রমন সংগঠন সদস্যরা দীর্ঘ দিন ধরে দেশের বিভিন্ন জায়গায় ভ্রমনে পর সম্প্রতি আর একটি পর্বত অনুসন্ধান পেয়েছে যার নাম দুমলং পাহাড়। দুমলং নামে এ পাহাড়টি রেংত্লাং ম্রো পাড়ার পর্বতশ্রেনীর অন্তর্ভূত ও রাইখ্যাং হ্রদের পার্শ্ববর্তী প্রংজং ত্রিপুরা পাড়া কাছাকাছিতে অবস্থিত। দুমলং নামে এ পাহাঁড়টি নেচারাল অ্যান্ডভেন্চার ক্লাব নামে একটি বেসরকারী ভ্রমন সংগঠনে সদস্যরা জারমিন জিপিএস(গোবাল পজিশনিং সিস্টেম) এর সাহায্য এ পর্বতটি উচ্চতা পরিমাপ করে বলে জানা গেছে। তারা এ পর্বতটি কে বাংলাদেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্খল বলে দাবি করে। তাদের হিসাব অনুসারে এ পর্বতটি উচ্চতা প্রায় ৩,৩১৪ বর্গ ফুট।
এদিকে বান্দরবান জেলা পর্যটনে সংশিষ্ট ও পর্যটকে পদপরিদর্শক (ট্যুরিস্ট গাইড) রা বলেছে, দুমলং পাহাড়টি রাঙ্গামাটি জেলার বিলাইছড়ি উপজেলায় ফারোয়া ইউনিয়নের অবস্থিত। রাঙ্গামাটি জেলা হয়ে দুমলং পাহাড়ে যেতে হলে কমপক্ষে ৪দিন বা ৫দিন সময় লাগে। তারা জানান, দুমলং পাহাড় অনেক দুরবর্তী এলাকাতে অবস্থিত হাওয়ার কারণে বেশীর ভাগই পর্যটক বান্দরবান জেলা হয়ে রুমা উপজেলা দিক দিয়ে আসা যাওয়া করে। রুমা উপজেলায় স্থানীয় পর্যটক পদপরিদর্শক (ট্যুরিস্ট গাইড) ও এলাকার স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, সম্প্রতি দুমলং পর্বতটি বাংলাদেশ, ভারত ও মায়ানমার এ তিন দেশের সিমান্তের এলাকায় অবস্থিত হাওয়ায় সেখানে পর্যটকদের ভ্রমনে মোটেও নিরাপদ নয়। ফলে প্রশাসনিকভাবে বর্তমানে ওই এলাকায় পর্যটক ভ্রমনে নিষিদ্ধ রয়েছে বলে জানিয়েছেন।