দু’দিন পিছিয়ে ২২ সেপ্টেম্বর থেকে সড়ক ও ফুটপাতে উচ্ছেদ চালাবে ডিএনসিসি

বৈঠক শেষে মেয়র আতিকুল ইসলাম

» উত্তরা নিউজ | অনলাইন রিপোর্ট | সর্বশেষ আপডেট: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ - ০৭:০২:২৯ অপরাহ্ন

ঢাকা: ২২ সেপ্টেম্বর থেকে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) সড়ক ও ফুটপাত হতে সকল ধরনের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ শুরু হবে। ডিএনসিসির উত্তরা অঞ্চল (অঞ্চল-১) থেকে এ উচ্ছেদ অভিযান শুরু হবে। অঞ্চল-১ এর সড়ক ও ফুটপাত থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ কার্যক্রম শেষ হওয়ার পরে অন্যান্য অঞ্চলেও অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ শুরু হবে। আজ বিকাল সাড়ে তিনটায় গুলশানস্থ নগর ভবনে অনুষ্ঠিত এক সভায় ডিএনসিসির মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম এ ঘোষণা দেন।

মেয়র বলেন, “সড়ক ও ফুটপাত দখল করে কোনো প্রকার বাণিজ্য করতে দেয়া হবে না। পথচারীদের জিম্মি করে দখল বাণিজ্য সহ্য করা হবে না”। মেয়র দলমত নির্বিশেষে সবাইকে ফুটপাত অবৈধ দখলমুক্ত করার আহবান জানান। তিনি আরো বলেন, সড়ক ও ফুটপাত দখল করে যারা নির্মাণসামগ্রী রাখে তাদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তিনি উচ্ছেদ অভিযান শুরু হওয়ার পূর্বেই অবৈধভাবে দখল করে রাখা সড়ক ও ফুটপাত ছেড়ে দেয়ার আহবান জানান।

সভায় উপস্থিত ঢাকা-১৭ আসনের সংসদ সদস্য আকবর হোসেন ফারুক পাঠান বলেন, “আমরা একটি দেশ যেখানে স্বাধীন করতে পেরেছি, সেখানে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ, রাস্তা-ঘাট পরিষ্কার এসবতো কোনো বিষয়ই না। আমরা অবশ্যই আমাদের দেশকে সুন্দর করে গড়তে পারবো”। ঢাকা-১৬ আসনের সংসদ সদস্য মোঃ ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লা বলেন, “আমি ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের নিয়ে আমার এলাকার সকল সড়ক ও ফুটপাত থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে জনগণের চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করতে ডিএনসিসির সাথে কাজ করবো”।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মোহাঃ শফিকুল ইসলাম বলেন, পুলিশ মানুষের কল্যাণের জন্য কাজ করতে চায়। সড়ক ও ফুটপাত থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে ডিএমপি সব ধরনের সহযোগিতা করবে।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আব্দুল হাই, প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা মোঃ আমিনুল ইসলাম, ওয়ার্ড কাউন্সিলরগণ, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।