ত্রিপোলীতে জাতিসংঘ সমর্থিত সরকারের ১৯ সৈন্য নিহত

উত্তরা নিউজ টোয়েন্টিফর ডটকম। আন্তর্জাতিক ডেস্ক : লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলি দখলে নেওয়াকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ তীব্রতর হচ্ছে।  ইতোমধ্যে সংঘর্ষে সেখানে ১৯ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।  এ সংখ্যা বাড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

২০১১ সালে মুয়াম্মার গাদ্দাফিকে ক্ষমতাচ্যুত ও হত্যার পর থেকে লিবিয়ায় রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা ও সহিংসতা চলে আসছে।

চারদিন আগে জেনারেল হাফতারের বাহিনী অভিযান শুরু করে এবং রাজধানীর উপকণ্ঠে লড়াই করছে।  এতে নিরাপত্তা পরিস্থিতির অবনতি হতে থাকায় আন্তর্জাতিক গোষ্ঠীগুলো তাদের কর্মকর্তাদের সরিয়ে নিতে শুরু করে।

জেনারেল হাফতারের বিদ্রোহী বাহিনী পূর্ব দিক থেকে ত্রিপোলির দখল নিতে অগ্রসর হয়েছে। জাতিসংঘ সমর্থিত সরকারের প্রধানমন্ত্রী হাফতারের বিরুদ্ধে অভ্যুত্থানের চেষ্টা অভিযোগ করেছেন এবং বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে শক্তি প্রয়োগ করা হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

সোমবার পূর্ব লিবিয় বাহিনী বা হাফতার বাহিনী মরুভূমি পেরিয়ে পূর্ব দিক থেকে ত্রিপোলিতে প্রবেশের চেষ্টা করে।  তবে  প্রধানমন্ত্রী ফায়েজ আল সেরাজের সমর্থক সশস্ত্র গ্রুপ মিসতারা থেকে ত্রিপোলিতে পৌঁছে তাদেরকে বাধা দেয়।

খলিফা হাফতারের ইস্টার্ন লিবিয়ান ন্যাশনাল আর্মি জানিয়েছে, সাম্প্রতিক সংঘর্ষে তাদের ১৯ জন সৈন্য নিহত হয়েছে।  লিবিয়াান ন্যাশনাল আর্মি ত্রিপোলির দক্ষিণে বিমান হামলা চালিয়েছে।

জাতিসংঘ জানিয়েছে, সংঘর্ষে প্রায় ২ হাজার ৮০০ লোক স্থানচ্যুত হয়েছে।  অনেকেই সংঘর্ষের মধ্যে আটকা পড়েছেন। এমন পরিস্থিতি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় উভয় পক্ষকে ধৈর্য ধারণ করতে বলেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *