ট্রাম্পকে নিয়ে পোস্ট, খামেনির টুইটার অ্যাকাউন্ট সাসপেন্ড


» এইচ এম মাহমুদ হাসান | | সর্বশেষ আপডেট: ২৩ জানুয়ারি ২০২১ - ০৯:৩৬:৪৮ পূর্বাহ্ন

বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে নিয়ে টুইট করায় ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনির টুইটার অ্যাকাউন্ট সাসপেন্ড করা হয়েছে। শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানা গেছে।

এতে বলা হয়েছে, বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) খামেনি তার টুইটার অ্যাকাউন্টে একটি যুদ্ধবিমানের ছায়ায় সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গলফ খেলছেন এমন একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন। এর জেরেই ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় এই নেতার অ্যাকাউন্ট সাসপেন্ড করল টুইটার কর্তৃপক্ষ।

টুইটারে খামেনি তার পোস্টে ২০২০ সালে নিহত ইরানের বিপ্লবী গার্ডের অভিজাত শাখা কুদস বাহিনীর প্রধান জেনারেল কাসেম সোলেইমানির হত্যার প্রতিশোধ নেয়ার কথাও জানিয়েছিলেন।

বৃহস্পতিবারের ওই পোস্টে ট্রাম্পকে উদ্দেশ করে খামেনি বলেন, ‘প্রতিশোধ অনিবার্য। সোলেইমানির হত্যাকারী ও যিনি এই নির্দেশ দিয়েছেন তারা অবশ্যই প্রতিশোধের মুখোমুখি হবে। যেকোনো সময় প্রতিশোধ নেয়া হতে পারে।’

এর আগে, বুধবার জো বাইডেনের অভিষেক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ না করেই ট্রাম্প হোয়াইট হাউস ত্যাগ করে ফ্লোরিডায় তার মার-এ-লাগো গলফ ক্লাবে চলে যান।

চলতি মাসের শুরুর দিকে সোলেইমানি হত্যার প্রথম মৃত্যুবার্ষিকীতে ইরানের প্রধান বিচারপতি ইব্রাহিম রাইসি সতর্ক করে দিয়ে বলেছিলেন, ‘ট্রাম্প বিচারের ঊর্ধ্বে নয় এবং সোলেইমানির হত্যাকারীরা পৃথিবীর কোথাও নিরাপদে থাকবে না।’

উল্লেখ্য, গত বছরের ৩ জানুয়ারি কাসেম সোলেইমানি তার লোকজন নিয়ে বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করার পরপরই মার্কিন ড্রোন হামলায় নিহত হন। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এই হামলার নির্দেশ দিয়েছিলেন। হামলার সময় সোলেইমানির সঙ্গে নিহত হন ইরাকি কমান্ডার আবু আল-মাহদিসহ আরও কয়েকজন।

গত বছরের ডিসেম্বরে তেহরানের প্রসিকিউটর আলি আলকাসিমের বলেছিলেন, ইরান আইনি পদ্ধতিতে সোলেইমানি হত্যার নির্দেশ ও সংঘটনে জড়িতদের সন্ধান করছে। এক্ষেত্রে ইন্টারপোলের সহযোগিতাও নেয়া হচ্ছে। অপরাধীদের মধ্যে ৪৫ মার্কিন নাগরিক রয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।