ছাত্রীদের সঙ্গে চরম অসভ্যতা শিক্ষিকার, বয়ফ্রেন্ডসহ গ্রেপ্তার অভিযুক্ত


» Md. Neamul Hasan Neaz | | সর্বশেষ আপডেট: ১১ জানুয়ারি ২০২০ - ০৬:৫১:৫৪ অপরাহ্ন

ছাত্রীদের সঙ্গে চরম অসভ্যতা ও যৌন নিপীড়নের দায়ে ১৯ বছরের এক শিক্ষিকা ও তার বয়ফ্রেন্ডকে গ্রেপ্তার করেছে ভারতের মধ্যপ্রদেশ পুলিশ। তাদের বিরুদ্ধে দেশটির প্রোটেকশন অব চিলড্রেন ফ্রম সেক্সুয়াল অফেন্সেস আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। সম্প্রতি ঘটনাটি ঘটেছে ওই রাজ্যের মহু নামক অঞ্চলে।

ভারতের স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, ওই শিক্ষিকার বাড়িতে সম্প্রতি পড়তে গিয়েছিল ছ’বছরের ওই বাচ্চা ও তার বোন। সেখানে শিক্ষিকা তাদেরকে বিবস্ত্র করে গোপনাঙ্গে পেন্সিল ঢুকিয়ে দেন বলে অভিযোগ। এখানেই শেষ নয়। সেই ঘটনার ভিডিও করেন শিক্ষিকা নিজেই। তারপর সেই ভিডিও পাঠিয়ে দেন নিজের বয়ফ্রেন্ডকে।

পড়া থেকে ফিরার পর গোপনাঙ্গে যন্ত্রণা হচ্ছে বলে জানায় তিন বছরের বাচ্চাটি। তখন জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে তার মা। সেই সময়ই শিক্ষিকার পেন্সিল ঢোকানোর কথা বলে দেয়। ছ’বছরের বাচ্চাটিও গোটা ঘটনার কথা জানায় মাকে। এরপরই ওই শিক্ষিকার বাড়িতে যান বাচ্চার পরিবারের লোক। অভিযুক্ত শিক্ষিকাকে মারধর করে তুলে দেন পুলিশের হাতে।

মধ্যপ্রদেশের মহু থানার স্টেশন ইনচার্জ অভয় নিমা বলেছেন, ওই বাচ্চারা জানিয়েছ টিউশন দিদি তাদের গোপনাঙ্গে পেন্সিল ঢুকিয়ে দেন। তারা চিৎকার করার পর আবার পড়াতে শুরু করে দেন অভিযুক্ত শিক্ষিকা। ওই শিক্ষিকাকে গ্রেপ্তার করে তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। আমরা ওই শিক্ষিকার বয়ফ্রেন্ডকেও গ্রেপ্তার করেছি।