“গল্প থেকে শিক্ষা” বই নিয়ে রথি-মহারথিদের মন্তব্য


» উত্তরা নিউজ | অনলাইন রিপোর্ট | সর্বশেষ আপডেট: ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ - ০৬:০৭:০১ অপরাহ্ন

মানুষের জীবন এক আশ্চর্য যাদুকরের যাদু ছাড়া আর কিছুই নয়। সে জীবনে আছে প্রেম, কাম, ক্রোধ, ভালোবাসা, ঘৃণা, দৈব ইশারা, বিশ্বাস-অবিশ্বাস আর মুগ্ধ হয়ে যাওয়ার মতো অবাক করা মুহূর্ত। সেই জীবন ক”ছপের গতির মতো চলতে চলতে হঠাৎ করে কার ইশারায় মুক্ত বিহঙ্গ হয়ে আকাশ উড়াল দেয় কে বলতে পারবে? জীবনের সব জটিল আর কুটিল বাঁকে বাঁকে অপেক্ষা করে বিদ্যুতের ঝিলিকের মতো কাব্যময় মুহূর্ত। সেই মুহূর্তগুলো হয়ে ওঠে কবি আর শিল্পীর তুলির ছোঁয়ায় কবিতা কিংবা গল্প-যা মিনহাজ উদ্দীন আত্তার এর “গল্প থেকে শিক্ষা” বইটিতে বিদ্যমান।                                         কবি আল-মুজাহিদী, একুশেপদক প্রাপ্ত কবি।

মিনহাজ উদ্দিন আত্তার এর গল্পগুলোতেও জীবনের বোধের স্রোত প্রবাহিত হয়েছে। যা পাঠকের হৃদয় অন্দোলিত করে সত্য ও সুন্দরের দিকে নিয়ে যাবে। লেখক যেমন অকপটে সবাইকে আপন করে নেয়। তার গল্পগুলোও পাঠককে আপন করে নিবে। তার গল্পগুলোতে সমসাময়িক অনেক সমস্যা, ক্ষয়িষ্ণুতা, সমাজের অধপতনের বাস্তব চিত্র ফুটে উঠেছে। তা থেকে শিক্ষা নিয়ে প্রতিটি পাঠক সাজাতে পারে নিজেদের যাপিত জীবন। ধ্বংসশীল মানবতা ও মানব চরিত্র আবার জীবন্ত ও সজ্জন হয়ে উঠতে পারে এ গল্পগুলোর বাস্তবতায়।

                                        সাইমুম সাদী লেখক,গবেষক ও শিক্ষাবিদ

গল্প আমাদের জীবনের প্রতিচ্ছবি। গল্পে যদি প্রতিশ্রুতি থাকে, যাপিত জীবনের বক্তব থাকে, মনের খোরাক থাকে তাহলে তা হয়ে উঠবে কালোত্তীর্ণ। যা মিনহাজ উদ্দীন আত্তার-এর গল্পের মাঝে বিদ্যমান।লেখকের এ লেখা চলুক অবক্ষয়িত সমাজের শুদ্ধির লক্ষ্যে। আরো নবতর চিন্তা ও মননে শাণিত হয়ে উঠুক লেখকের প্রতিটি লেখা। পরিশেষে লেখক ও লেখকের সকল কাজ কবুল হোক রবের দরবারে এ দোয়া ও প্রত্যাশা রইল।

                    মুফতী নেয়ামতুল্লাহ আমিন, সম্পাদক, মাসিক যুবকন্ঠ।

 

গল্প শুধু গল্প নয়। গল্পতো জীবনের কার্বণকপি। প্রতিটি মানুষের জীবন ই প্রকৃত পক্ষে গল্পের সমষ্টি। মিনহাজ উদ্দীন আত্তার বর্তমান সময়ের এক উজ্বল জ্যোতিষ্ক । তার প্রতিটি বাক্য প্রাণদীপ্ত, সময়ের ছোঁয়ায় লিপিবদ্ধ। তার আলোকিত অগ্রযাত্রা কামনায়।

শামস আরেফ, নির্বাহী সম্পাদক; পাক্ষিক তুলির ক্যানভাস।

মিনহাজ উদ্দীন আত্তার। লেখায় একেবারে তরুণ। ক’দিন হলো মাত্র কলমের সাথে বসবাস। কিন্তু সে একজন ডাঁট সংগঠক। তার চিন্তা সুচিন্তিত, তার মতবাদ সর্বগ্রাহ্য, তার স্লোগান বিপ্লবমুখর, তার মেধা জ্ঞানসিদ্ধ। তাই, লেখালিখিতে অনেকটা কম সময়েই স্থান করে নিতে পেরেছে। অনেক বিষয়ই সে লেখে, তবে তার ঝোঁক বেশি গল্পে। হঠাৎ ভাবনার গল্প লেখে সে। হঠাৎ ভাবনার গল্পটা কি? যে গল্পের কাহিনীটা চলতে পথে পাওয়া। অসুখ মানুষে সুখ, দুঃখী মানুষে দুঃখ, অসুন্দরের সুন্দর, অনাধিকারের অধিকার তার গল্পের বিষয়।

হাবীবুল্লাহ সিরাজ, সম্পাদক, মাসিক তরুলতা।

মিনহাজ উদ্দীন আত্তার গল্পের মধ্য দিয়ে এই অসুন্দর সমাজকে সুন্দর সমাজের বার্তা দিতে চায়। আত্মিক মানসিক ও সামাজিক উন্নতির সোপান তৈরি করতে চায় গল্পের মধ্য দিয়ে। একজন গল্পকার হিসেবে নয়, এই ভাঙ্গা সমাজের একজন ক্ষুদ্র রাখাল হিসেবে পথ চলতে চায়।

মাওলানা শামসুদ্দীন সাদী, নির্বাহী সম্পাদক, কিশোরপথ।

গল্পই জীবন। গল্প শুধু শব্দের সাথে শব্দের পঙ্ক্তি দিয়ে সাজানো বাক্যের অবকাঠামো নয়। শব্দ আর বাক্যের ভেতর দিয়ে এক একটি জীবনের নির্যাসের প্রতিচ্ছবি। ব্যাথা-ব্যাকুলতা, অনন্দ-বেদনা, দুঃখ-কষ্ট, হাসি-কান্নার ঝরণার ছলাৎছলাৎ স্বরের ছন্দময়তা প্রস্ফুটিত হয় মিনহাজ উদ্দীন আত্তার-এর গল্পের ক্যানভাসে।

মুফতী কাজী সিকান্দার, সম্পাদক, মাসিক কলম, মা,ক,।