ক্ষমতাসীনদের অবৈধ ও স্বেচ্ছাচারি মনোভব দেশকে অশান্ত করে তুলছে

মুফতী সৈয়দ ফয়জুল করীম

মুফতী সৈয়দ ফয়জুল করীম
» উত্তরা নিউজ | অনলাইন রিপোর্ট | সর্বশেষ আপডেট: ২২ জুন ২০১৯ - ০৮:৩৯:১৭ অপরাহ্ন

উত্তরা নিউজ ডেস্ক: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম বলেছেন, রাষ্ট্রের অধিকাংশ কর্মকর্তা-কর্মচারিরা অনৈতিকতা ও দুর্নীতিতে আকুন্ঠ নিমজ্জিত। ক্ষমতার অপব্যবহারে সাধারণ মানুষ আজ অসহায়। তিনি বলেন, সরকারের অবৈধ ও স্বেচ্ছাচারি মনোভাব দেশকে অশান্ত করে তুলছে। দেশের মানুষ ঘরে বাইরে কোথাও নিরাপদ নয়। তিনি বলেন, ক্ষমতাসীনদের অবৈধ ক্ষমতার প্রভাব আর বিচারহীন সংস্কৃতির কারণে এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হচ্ছে। ইসলামী হুকুমত প্রতিষ্ঠা ব্যতীত মানুষের জান-মালের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা সম্ভব নয়। আর ইসলামী হুকুমতের গুরু দায়িত্ব পালন করতে হবে ইসলামী আন্দোলনের দায়িত্বশীল ও তৃণমূল নেতৃত্বকে। এজন্য সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের যুগ-চাহিদার আলোকে গড়ে উঠতে হবে। দীন প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে নেতাকর্মীদেরকে আদর্শিকভাবে গড়ে উঠতে হবে। ত্যাগ ও কুরবানীর দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে হবে। আদর্শিক, আধ্যাত্মিক, সামাজিক, সাংগঠনিক ও রাজনৈতিক গুণাবলী অর্জন করতে হবে। একজনের ওপর অপরজনের অগ্রাধিকার দেয়ার মানসিকতা থাকতে হবে। নেতাকর্মীদের চরিত্র সুন্দর ও চরিত্রবান হতে হবে।

আজ শনিবার সকাল ৯টা থেকে রাজধানীর বিএমএ মিলনায়তনে দিনব্যাপী দফতরভিত্তিক জেলা /মহানগর দায়িত্বশীল তারবিয়াতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সংগঠনের মহাসচিব অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বিষয়ভিক্তিক তারবিয়াত প্রদান করেন প্রেসিডিয়াম সদস্য আল্লামা নূরুল হুদা ফয়েজী, রাজনৈতিক উপদেষ্টা অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন, যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক মাওলানা এটিএম হেমায়েত উদ্দীন ও অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান, সহকারি মহাসচিব আলহাজ্ব আমিনুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম, দফতর সম্পাদক মাওলানা লোকমান হোসাাইন জাফরী, প্রশিক্ষণ সম্পাদক প্রিন্সিপাল শেখ ফজলে বারী মাসউদ, মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন সাকী প্রমুখ। তারবিয়াতে উপস্থিত ছিলেন কেএম আতিকুর রহমান, মুফতী হেমায়েতুল্লাহ, মাওলানা নেছার উদ্দিন, গাজী রুহুল আমীন, আলহাজ্ব আব্দুর রহমান, এডভোকেট শেখ লুৎফুর রহমান, আলহাজ্ব জান্নাতুল ইসলাম, অধ্যাপক সৈয়দ বেলায়েত হোসেন, এডভোকেট একেএম এরফান খান, মুফতী কেফায়েতুল্লাহ কাশফী, মাওলানা খলিলুর রহমান প্রমুখ।