কুয়েতে অবৈধ বাংলাদেশী শ্রমিকদের আবেদন পত্র গ্রহণ চলছে


» কামরুল হাসান রনি | ডেস্ক ইনচার্জ | | সর্বশেষ আপডেট: ২১ নভেম্বর ২০১৯ - ০২:০৭:৫২ অপরাহ্ন

বিলাল উদ্দিন, কুয়েত থেকেঃ ভিটেমাটি বিক্রি করে সোনার হরিণের আসায় আর জীবনে স্বচ্ছলতা পরিবার পরিজনের মুখে হাসি ফুটাতে সব কিছু ফেলে সূদুর দূুর প্রবাসে আসা।

কারো ভাগ্যে জুটেনি দুবেলা আহার নেই কর্মসংস্হানের ব্যবস্হা কপিল বা মালিক কোম্পানির নেই ঠিকানা অবৈধ হয়ে ঘুরছে কুয়েতে। মানবেতর জীবনযাপন আর পুলিশের গ্রেফতারের ভয়ে মরুভূমির কোথাও না লুকিয়ে স্বল্প বেতনে পরে আছে এ সব আকামা বিহীন অবৈধ প্রবাসী বাংলাদেশী শ্রমিকরা।

এ দিকে গত ২০ নভেম্বর কুয়েতস্হ বাংলাদেশ দূতাবাসের শ্রম কাউন্সিলের দূতালয় প্রধান আনিসুজ্জামান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন কুয়েতে বিভিন্ন কোম্পানিতে গত ২০১৭, ২০১৮, ও ২০১৯ সালে আসার পর আকামা বা (রেসিডেন্সি) লাগেনি বা এক/দু’বছরের আকামা লাগার পর আর নবায়ন হয়নি এ সব প্রবাসী বাংলাদেশী শ্রমিকদের কাছ থেকে প্রয়োজনীয় তথ্য সহ আবেদন পত্র গ্রহন করছে।

আবেদন পত্রের সাথে ভিসার কপি, পাসপোর্টের কপি, আকামার কপি, দেশ থেকে আসা রিক্রুটিং এজেন্সির নাম, যার মাধ্যমে কুয়েত আসা নাম ফোন নম্বর, কোম্পানির নাম,আবেদন কারীর নাম স্বাক্ষর সহ দূতাবাসের (শ্রম) বিভাগে আবেদন পত্র জমা দিতে বলা হয়েছে।